রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

১ এপ্রিল শুরু হচ্ছে এইচএসসি পরীক্ষা : সিলেট বোর্ডে পরীক্ষার্থী বেড়েছে সাড়ে ৫ হাজার



education board imagesস্টাফ রিপোর্টার : গত বছরের চেয়ে এবার সিলেট শিক্ষা বোর্ডে এইচএসসি পরীক্ষায় ৫ হাজার ৫শ’ ১১ জন পরীক্ষার্থী বেড়েছে। এবার এ বোর্ডে সবমিলিয়ে ৪৩ হাজার ২শ’ ৭৯ জন পরীক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করছে। গত বছর পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩৭ হাজার ৭শ’ ৬৮ জন। বাড়ানো হয়েছে ৫টি নতুন কেন্দ্র। আগামী ১ এপ্রিল সোমবার থেকে সারাদেশের ন্যায় সিলেট বিভাগের ৭২ টি কেন্দ্রে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডে সিলেটের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আব্দুল মান্নান খান এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, সুষ্ঠভাবে পরীক্ষা গ্রহণের জন্যে এরই মধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা বোর্ড সিলেট’র সংশিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, আগামী ১ এপ্রিল থেকে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। মোট পরীক্ষার্থীর মধ্যে ছাত্র ২০ হাজার ২শ’ ৬১ জন ও ছাত্রী ২৩ হাজার ১৮ জন। সিলেট বিভাগের মধ্যে সর্বোচ্চ পরীক্ষার্থীর সংখ্যা সিলেট জেলায়। সুনামগঞ্জ জেলার পরীক্ষার্থীর সংখ্যা সর্বনিম্ন। সিলেট জেলায় ১৮ হাজার ৯শ’ ৮৯ জন, মৌলভীবাজার জেলায় ৯ হাজার ৫শ’ ৯৪ জন, হবিগঞ্জ জেলায় ৮ হাজার ২শ’ ৫২ জন ও সুনমাগঞ্জ জেলায় ৬ হাজার ৪শ’ ৪৪ জন। বোর্ডের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে বিজ্ঞান বিভাগে ৬ হাজার ১শ’ ৪ জন, মানবিক বিভাগে ২৮ হাজার ২শ’ ৯ জন ও ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ৮ হাজার ৯শ’ ৬৬ জন পরীক্ষার্থী রয়েছেন। বিজ্ঞান বিভাগের পরীক্ষার্থীদের মধ্যে ছাত্র ৩ হাজার ৫শ’ ৯ জন, ও ছাত্রী ২ হাজার ৫শ’ ৯৫ জন, মানবিক বিভাগে ছাত্র ১০ হাজার ৯শ’ ২৭ জন ও ছাত্রী ১৭ হাজার ২শ’ ৮২ জন, ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগে ছাত্র ৫ হাজার ৮শ’ ২৫ জন ও ছাত্রী ৩ হাজার ১শ’ ৪১ জন শিক্ষার্থী পরীক্ষায় অংশ গ্রহণ করছে। সূত্র জানায়, সিলেট বিভাগের ৪ জেলায় ৭২ টি কেন্দ্রে এই পরীক্ষা গ্রহণ করা হবে। এবছর ৫টি নতুন পরীক্ষা কেন্দ্র বৃদ্ধি করা হয়েছে। নতুন পরীক্ষা কেন্দ্রের মধ্যে রয়েছে সুনামগঞ্জ জেলায় ২টি, সিলেট জেলা ১টি, মৌলভীবাজার জেলায় ১টি ও হবিগঞ্জ জেলায় ১টি। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, গত বছর এইচএসসি পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৩৭ হাজার ৭শ’ ৬৮ জন। ৬৭ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে অনুষ্ঠিত পরীক্ষায় ৩৭ হাজার ৩শ’ ৭২ জন পরীক্ষার্থী অংশ গ্রহণ করে। পরীক্ষায় অংশ গ্রহণকারীদের মধ্যে বিভিন্ন গ্রেডে পাশ করেন ৩১ হাজার ৯শ’ ৩ জন। উত্তীর্ণদের মধ্যে জিপিএ-৫ অর্জন করেছিলেন ২ হাজার ৬৫ জন পরীক্ষার্থী। এ বোর্ডের গতবারের পাশের হার ছিল ৮৫ দশমিক ৩৭ শতাংশ। এর আগে ২০১১ সালে বোডের্র ৩১ হাজার ২শ’ ৪৬ জন পরীক্ষার্থীর মধ্যে ৩০ হাজার ৮শ’ ৯৪ জন পরীক্ষায় অংশ নেয়। এর মধ্যে উত্তীর্ণ হন ২৩ হাজার ৩শ’ ৮১ জন পরীক্ষার্থী। উত্তীর্ণদের মধ্যে জিপিত্র-৫ অর্জন করে ৮শ’ ৮৭ জন। পাশের হার ছিল ৭৫ দশমিক ৬৮ শতাংশ। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, এইচএসসি পরীক্ষা সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও নকলমুক্ত পরিবেশে সম্পন্নের লক্ষ্যে ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। পরীক্ষার দায়িত্বপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মকর্তাদের সাথে এনিয়ে পৃথক বৈঠক করেছে সিলেট শিক্ষাবোর্ড কর্তৃৃপক্ষ। পরীক্ষার্থীদের প্রবেশপত্র ইতোমধ্যে সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান প্রধানদের নিকট প্রেরণ করা হয়েছে। পরীক্ষা চলাচালে প্রতিটি কেন্দ্র পরিদর্শনের জন্যে গঠন করা হয়েছে ৪০ টি ভিজিল্যান্স টিম। এছাড়াও বোর্ডের নিজস্ব ৪টি টিম পরীক্ষা চলাকালে প্রতিদিন পরীক্ষা কেন্দ্র পরিদর্শনে যাবেন। মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড সিলেট’র পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক আব্দুল মান্নান খান বলেছেন, সারাদেশের ন্যায় ১ এপ্রিল থেকে সিলেট বিভাগের ৭২ টি পরীক্ষা কেন্দ্রে এইচএসসি পরীক্ষা শুরু হবে। গত বছরের চেয়ে এবছর ৫ হাজার ৫শ’ ১১ জন পরীক্ষার্থী বেড়েছে। ইতোমধ্যে সকল প্রস্তুতিও সম্পন্ন করা হয়েছে। শান্তিপূর্ণ ভাবে পরীক্ষা সম্পন্নের জন্যে তিনি সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত