শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাজনগরে আগ্নেয়াস্ত্র ও গুলিসহ ইমাম আটক



মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের রাজনগরে একটি আগ্নেয়াস্ত্র (এলজি) ও ২ রাউ- গুলিসহ এক ইমামকে আটক করেছে থানা পুলিশ। স্থানীয় ইউপি সদস্যের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার ভোর ৬টায় উপজেলার ফতেহপুর ইউনিয়নের দড়্গিণ কাশিমপুর এলাকা থেকে এসআই আবুল হোসেন ও এসআই রতন দেবনাথের নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল অভিযান চালিয়ে ওলিদুর রহমান (৩৪) নামের ওই ব্যক্তিকে আটক করেন। এ ব্যাপারে ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির বাদী হয়ে রাজনগর থানায় অস্ত্র আইনে মামলা (নং-১২, ১৮.৩.১৩) করেছেন।এলাকাবাসী ও থানা পুলিশ সূত্র জানায়, স্থানীয় ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির তার গ্রামের মসজিদে ইমাম হিসেবে হবিগঞ্জ জেলার নবীগঞ্জ উপজেলার সদরঘাট (মাজপাড়া) গ্রামের রহমত উলস্নাহর ছেলে অলিদুর রহমানকে প্রায় এক মাস আগে নিয়োগ দেন। এরপর থেকে ইউপি সদস্যের বাড়িতে লজিংয়ে ছিলেন অলিদুর রহমান। গত রোববার রাত ১২টার দিকে জনৈক যুবক অস্ত্রটি দেখে ইউপি সদস্যকে জানায়। তিনি রাজনগর থানা পুলিশকে খবর দিলে পুলিশর একটি দল অভিযোন চালিয়ে তাকে আটক করে।
পুলিশের উপস্থিতিতে অলিদুর রহমানকে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি জানান, তার এলাকার বাজারে নানা বাড়ির সূত্রে পাওয়া ১৯ শতক জমি অনেক দিন যাবত বেদখল রয়েছে। তিনি পুরো জমিটি দখলে নিতে পারছেন না। এ জন্য তাকে এলাকায় হয়রানি করা হচ্ছে। প্রায় ১৪ বছর থেকে তিনি বাড়িছাড়া রয়েছেন। জমির দখলদারদের ফাঁসাতে তিনি এ অস্ত্রটি তার পরিচিত এক ব্যক্তির কাছ থেকে আনেন।
রাজনগর থানা পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, তার বিরম্নদ্ধে এলাকায় গরম্ন চুরিসহ অন্যান্য একাধিক অভিযোগ রয়েছে। সিলেটে লেখাপড়া করার সময় সেখানেও বিভিন্ন অপকর্ম করেছেন। ওই এলাকার মেম্বার, চেয়ারম্যান ও পুলিশের কাছ থেকে এসব বিষয় জানানো হয়েছে। গত এক মাস আগে স্থানীয় মসজিদে ইমাম হিসেবে ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির তাকে নিয়োগ দেন। তিনি তার বাড়িতেই লজিং থাকতেন।
ইউপি সদস্য আব্দুল কাদির জানান, বিভিন্ন স্থানে যোগাযোগ করার পর তাকে আমার মসজিদে ইমাম হিসেবে নিয়োগ দেই। তিনি আমার বাড়িতে লজিং থাকতেন। আমার ভাতিজা তাকে অস্ত্র নাড়তে দেখে আমাকে জানায়। পরে এলাকার লোকজন নিয়ে তাকে ঘেরাও করে আটক করে পুলিশে দেয়া হয়। রাজনগর থানা পুলিশ সত্যতা নিশ্চিত করেছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত