রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

খালেদার উপস্থিতিতে বিএনপির গুলশান কার্যালয়ে গুলিবর্ষণ



1107_1ডেস্ক রিপোর্ট : বিরোধীদলীয় নেতা ও বিএনপি চেয়ারাপারসন বেগম খালেদা জিয়ার গুলশান কার্যালয় লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণের ঘটনা ঘটেছে। এই সময় কার্যালয়ে অবস্থান করছিলেন তিনি।রবিবার রাত ১১টা ১০মিনিটের দিকে তিনটি মোটরসাইকেলে ছয়জন আরোহী কার্যালয় লক্ষ্য করে গুলিবর্ষণ করে। এ সময় সেখানে বিএনপি চেয়ারপারসনের সভাপতিত্বে ১৮ দলীয় জোটের বৈঠক চলছিল। তবে গুলিবর্ষণের ঘটনার পাঁচ মিনিটের মধ্যেই জোটের বৈঠক শেষ করা হয়। গুলিবর্ষণের খবর পেয়ে পুলিশ ও গোয়েন্দা সংস্থার সদস্যরা সেখানে পৌঁছান। তারা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছেন। এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করতে পারেনি পুলিশ। বিএনপি চেয়ারপারসনের মিডিয়া কর্মকর্তা সামসুদ্দিন দিদার, রাত ১১টা ১০ মিনিটের দিকে তিনটি মোটর সাইকেলে ছয়জন আরোহী চেয়ারপারসনের কার্যালয় লক্ষ্য করে অস্ত্র উঁচিয়ে পর পর তিন রাউন্ড গুলিবর্ষণ করে।
কার্যালয়ের দেয়ালে গুলির আঘাতের ছাপ এখনো স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা কোনো কিছু বুঝে উঠার আগেই দুবৃত্তরা সটকে পড়ে। এখন সেখানে দায়িত্বরত পুলিশ সদস্যরা সতর্ক অবস্থানে রয়েছেন। প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া তার কার্যালয়ে অবস্থান করছেন। বিএনপি চেয়ারপারসনের গুলশান কার্যালয়ে গুলিবর্ষণের ঘটনাকে জাতির জন্য বিপদ সংকেত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। গুলশান কার্যালয়ে তাৎক্ষণিক ব্রিফিংয়ে তিনি বলেন, কূটনৈতিক এলাকার মধ্যে এসে এমন গুলিবর্ষণের ঘটনা সংঘটিত করা প্রমাণ করে, দেশে আইন শৃঙ্খলার কতটা অবনতি হয়েছে। কারা এমনটি ঘটিয়ে থাকতে পারে- সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ফখরুল বলেন, এই সরকারের মদদপুষ্ট সন্ত্রাসীরাই এই ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।
‘সন্ত্রাসীদের চিহ্নিত করা সরকারের দায়িত্ব। সরকারকেই এই হামলাকারীদের খুঁজে বের করতে হবে’ বলেন ফখরুল।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত