মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের কর্মসূচীর সাথে জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউরোপ-এর ঐক্যমত পোষণ



ডেস্ক রিপোর্ট : ও নাস্তিক-ব্লগারদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী গত এপ্রিল জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউরোপ লন্ডন মহানগরীর উদ্যোগে স্থানীয় দি ম্যাক্রো বিজনেস সেন্টারে এক বিশাল জনসভার আয়োজন করা হয়। মুফতি মাওঃ মাওসুফ আহমদের সভাপতিত্বে, মাওঃ মামনুন মহিউদ্দিন ও মাওঃ জসিমুদ্দিনের যৌথ পরিচালনায় কালামে পাক থেকে তেলাওয়াত করেন হাফিজ আবু সাঈদ। জনসভায় বক্তারা আল্লামা শাহ আহমদ শফি (দাঃবাঃ) ঘোষিত সকল কর্মসূচীর প্রতি সম্পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করতঃ ৬ই এপ্রিল ঢাকা অভিমুখে লংমার্চ সফল করার জন্য দলমত নির্বিশেষে অংশগ্রহণ করার জন্য সবাই কে আহব্বান জানান। মুফতি মাওসুফ তাঁর বক্তব্যে জাতির ক্রান্তিকালে আল্লামা শাহ আহমদ শফির (দাঃবাঃ) সংগ্রামী ভুমিকার জন্য মোবারকবাদ জানিয়ে বলেন ইসলাম কে নিয়ে নাস্তিকেরা যখন রঙ্গমঞ্চ তৈরী করছে, বুলেটের আঘাতে রাজপথে গড়াগড়ি খাচ্ছে দাড়ি-টুপি ওয়ালাদের লাশ তখন আর মতানৈক্য থাকতে পারেনা, এবার সময় এসেছে আলেম-উলামা কৃষক-মজুর এক মঞ্চে দাঁড়াবার। সংগঠনের সিনিয়র সভাপতি মাওঃ ক্বারী আব্দুল করীম বলেন বর্তমান সরকার নাস্তিকদের পুলিশি প্রটেকশন দিয়ে মহান আল্লাহপাক ও মহানবী (সঃ) কে অবমাননায় উৎসাহ জোগাচ্ছে। তিনি বলেন ইসলামের অবমাননা করে ফেরাউন ও নমরুদ রেহাই পায়নি, সরকার ও রেহাই পাবেনা। তৌহিদী জনতার আদালতে হাসিনা ও তার দোশরদের বিচার একদিন ঠিকই হবে। সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা হাফিজ মাওঃ শামছুল হক বলেন সরকার সম্প্রতি কিছু নাস্তিক-ব্লগার কে গ্রেফতারের নাটক সাজিয়ে তাদের কে যে জামাই আদরে রাখছে জনগনের তা অজানা নয়। তিনি বলেন এ কুলাঙ্গাররা অতি কুৎসিত ভাষায় যেভাবে মহানবী (সঃ)-এর চরিত্রহনন করেছে এদের জনসম্মুখে এনে প্রকাশ্যে ফাঁসি দেয়া উচিৎ। তিনি আশা পোষণ করে বলেন সরকার যদি ইসলামের প্রতি শ্রদ্ধাশীল থেকে থাকে তাহলে ব্লাশফেমী আইন প্রণয়ন করে ধর্ম অবমাননাকারী সকল নাস্তিকদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দেবে। জমিয়ত নেতা আলহাজ্ব আব্বাস মিয়া বলেন শুধু ব্লগার নয় সরকারের মন্ত্রীসভা থেকে শুরু করে স্পীকার পর্যন্ত অনেকেই আজ নাস্তিকতা চর্চা করছে। এ বিষয়ে তিনি ডেপুটি-স্পীকারের বোরকা বিষয়ক কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যবের কথা উল্লেখ করে এর তীব্র নিন্দা জানান। বক্তারা মিডিয়ার ভূমিকা নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে হলুদ সাংবাদিকতাদুষ্ট কিছু পত্রিকার নাম উল্যেখ করে বলেন যারা আলেম-উলামা ও ইসলামী আন্দোলন সম্পর্কে মিথ্যা তথ্য প্রকাশ করছে জাতির কাছে তারা অপরাধী হয়ে থাকবে। জনসভা থেকে বস্তুনিষ্ট সংবাদ পরিবেশনের জন্য আমারদেশ সম্পাদকের সাহসী ভুমিকার ভূয়সী প্রশংসা করা হয়। এ ছাড়া অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মাওঃ মোস্তফা আহমদ উপদেষ্টা জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউরোপ, হাঃ মাওঃ মোবারক আলী সহ-সভাপতি জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউরোপ। সৈয়দ মাওঃ মোশাররাফ আলী মহাসচিব জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ইউরোপ। মাওঃ ফয়েজ আহমদ সেক্রেটারী বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস যুক্তরাজ্য। মাওঃ নজিরুল ইসলাম খতিব মেইল এন্ড জামে মসজিদ, জমিয়ত নেতা মাওঃ আজিমুদ্দীন, মাওঃ আব্দুল আউয়াল, মাওঃ এনামুদ্দীন, মাওঃ আব্দুল মুনীম, মুফতি বুরহানুদ্দীন, মাওঃ শিহাবুদ্দীন, মুফতি লুৎফুর রহমান, জনাব আসাদ রহমান, হাজী শাইস্তা মিয়া প্রমুখ। পরিশেষে জমিয়ত-উপদেষ্টা মাওঃ বশির উদ্দীন সাহেবের দোয়ার মাধ্যমে সভার সমাপ্তি ঘোষনা করা হয়।

 

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত