রবিবার, ২৯ মার্চ ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৫ চৈত্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে তিন সন্তানের জননী বিধবা মহিলার লাশ ঊদ্ধার



কমলগঞ্জ প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের সীমান্তবর্তী কমলগঞ্জ উপজেলার ইসলামপুর ইউনিয়নে তিন সন্তানের জননী বিধবাকে হত্যার পর লাশ ঝুলিয়ে রাখার অভিযোগ উঠেছে। গত বৃহষ্পতিবার সকাল সাড়ে ১১টায় কমলগঞ্জ থানা পুলিশ ইসলামপুর ইউনিয়নের পূর্ব কাঠালকান্দি গ্রাম থেকে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছে।
সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, পূর্ব কাঠালকান্দি গ্রামের মৃত নজিব আলীর সী্ত্র তিন সন্তানের জননী আমিরুন বেগম (২৮) এর ঘর থেকে ঝুলন্ত লাশের খবর পেয়ে পুলিশ লাশ উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করেছে। নিহত বিধবার মা সমরুন বিবি ও ভাবী দিলারা বেগম বলেন, স্বামী মারা যাওয়ার পর পার্শ্ববর্তী বাড়ির আব্দুল মিয়া (৩৫)এর সাথে আমিরুন বেগমের গোপনে অবৈধ সম্পর্ক গড়ে উঠে। এক পর্যায়ে আমিরুন তিন মাসের অন্তঃসত্তা হয়। তিন মাসের অন্তঃসত্তা নিয়ে উভয় পরিবারের মাঝে বিরোধ সৃষ্টি হয়। এক পর্যায়ে আব্দুল মিয়া গত বুধবার রাত ১২ টা পর্যন্ত আমিরম্ননের ঘরে অবস্থান করে গর্ভ বিনষ্ট করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়ে শ্বাসরুদ্ধ করে ঘরে লাশ ঝুলিয়ে রাখে। তারা আরও বলেন, রাত আড়াইটায় আমিরুনের ৩ বছরের মেয়ে ঘুম থেকে উঠে মায়ের লাশ দেখতে পেয়ে চিৎকার দিয়ে উঠে। এরপর তারা সবাই দৌড়ে এসে মাটির সাথে হাটু লাগানো ঝুলন্ত লাশ দেখতে পান। এ ঘটনায় অভিযুক্ত আব্দুল মিয়ার বক্তব্য জানতে চেয়ে তাকে খোঁজে পাওয়া যায়নি। ইসলামপুর ইউনিয়নের স্থানীয় ইউপি সদস্য লিয়াকত আলী বলেন, যে অবস্থায় মাটির সাথে ঝুলন্ত লাশের অবস্থা দেখে আত্মহত্যা বলে মনে হচ্ছে না। তাদের অবৈধ সম্পর্ক বিষয়ে এলাকায় আনাগোনা শুনা যাচ্ছে বলে তিনি মন্তব্য করেন। এ ব্যাপারে তিন মাসের অন্তঃসত্তা স্বীকার করে লাশ উদ্ধারকারী কমলগঞ্জ থানার এসআই মধুসুদন রায় বলেন, সুরতহাল তৈরী করে ময়না তদন্তের জন্য মর্গে প্রেরণ করেছেন। এ ঘটনায় এখনও কোন লিখিত অভিযোগ পাওয়া যায়নি। তবে ময়না তদন্তের রিপোর্ট আসার পর আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত