বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিচারকের প্রতি জুতা নিক্ষেপ



33361_555দিল্লির একটি আদালত ১৯৮৪ সালে দিল্লিতে শিখ বিরোধী দাঙ্গার মামলায় ক্ষমতাসীন কংগ্রেসের সাবেক এমপি সজ্জন কুমারকে খালাস দিলে বিচারকের প্রতি জুতা নিক্ষেপ করা হয়। তবে আদালত ভারতীয় দন্ডবিধির ৩০২ ধারায় অন্য পাঁচজনকে দোষী সাব্যস্ত করে। দ্য টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবরে একথা বলা হয়।
মঙ্গলবার দিল্লির জেলা ও দায়রা জজ জেআর আর্য সাবেক এমপি সজ্জন কুমারকে বেকসুর খালাস দেন এবং অন্য পাঁচ জনকে দোষী সাব্যস্ত করে। দোষী সাব্যস্তরা হলো সাবেক কাউন্সিলর বলবন খোকার, মহেন্দর যাদব, সাবেক এমএলএ কিষাণ খোকার, গিরিধারী লাল ও ক্যাপ্টেন ভগমল।
বিচারক জনাকীর্ণ আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। রায়ের বিরুদ্ধে তাৎক্ষণিক প্রতিবাদ বিক্ষোভ প্রদর্শন করা হয়। একজন বিক্ষোভকারী বিচারকের প্রতি জুতা ছুঁড়ে মারেন।
লোকসভার সাবেক এমপি সজ্জন কুমার আরো একটি মামলার আসামী। তৃতীয় মামলায় দিল্লি পুলিশের দায়েরকৃত চূড়ান্ত রিপোর্টে বলা হয়, সজ্জন কুমারের বিরুদ্ধে কোনো প্রমাণ খুঁজে পাওয়া যায়নি। রায় ঘোষণা উপলক্ষে কারকারদুমা জেলা আদালত প্রাঙ্গনে বিপুলসংখ্যক লোক জমায়েত হয়। বিবাদী জগদীশ কাউর প্রতিবাদে আদালতের অভ্যন্তরে অবস্থান ধর্মঘট শুরু করে বলেন, ন্যায়বিচার না পাওয়া পর্যন্ত তিনি স্থান ত্যাগ করবেন না।
১৯৮৪ সালে প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী দু’জন শিখ দেহরক্ষীর গুলিতে নিহত হলে ৩১ অক্টোবর থেকে ভারতের জাতীয় রাজধানীতে প্রচ- শিখ বিরোধী দাঙ্গা শুরু হয়। ৩ নভেম্বর পর্যন্ত এ দাঙ্গায় হাজার হাজার শিখ নিহত হয়। দাঙ্গায় নেতৃত্ব দিয়েছিলেন কংগ্রেসের নেতা কর্মীরা। এমপি সজ্জন কুমার ছিলেন দাঙ্গায় নেতৃত্বদানকারীদের অন্যতম।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত