বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় দু’দিন ব্যাপী প্রতিবন্ধী সমাবেশ অনুষ্টিত



OLYMPUS DIGITAL CAMERAকুলাউড়া প্রতিনিধি : প্রতিবন্ধীরা পরিবারের জন্য বোঝা নয়। তাদেরকে সঠিক যত্ন, মমতা ও শিক্ষা প্রদান করা হলে তারাও স্বাভাবিক মানুষের মতো যোগ্য হয়ে ওঠতে পারে। প্রতিবন্ধীদের অবহেলা না করে ঘরে ও রাস্তাঘাটে তাদের দিকে সহমর্মিতার হাত বাড়িয়ে দিতে হবে। প্রতিবন্ধী হওয়া কারো অপরাধ নয়। তাদের প্রতি অন্যায় আচরণ করা কারোই উচিত না। গত ১০ ও ১১মে দুইদিন ব্যাপী কুলাউড়া উপজেলার কর্মধা ইউনিয়নের লক্ষ্মীপুর ধর্মপল্লী মিলনায়তনে ‘প্রতিবন্ধী ভাইবোনদের জীবনে বিশ্বাস’ শীর্ষক আলোচনা সভায় বক্তারা উপরোক্ত কথা বলেন। কুলাউড়া ও শ্রীমঙ্গল উপজেলার চা-জনগোষ্ঠী, আদিবাসী সহ বিভিন্ন সমপ্রদায়ের প্রতিবন্ধীদের এই সমাবেশের আয়োজন করে বেসরকারি সংস্থা কারিতাস। লক্ষ্মীপুর ধর্মপলীর পরিচালক ফাদার যোসেফ গোমেজের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন সিলেট অঞ্চলের ক্যাথলিক খ্রিস্টান প্রধান বিশপ বিজয় এন ডি ক্রুজ, দৈনিক প্রথম আলোর মৌলভীবাজার জেলা প্রতিনিধি আকমল হোসেন নিপু, কারিতাস সিলেট অঞ্চলের প্রশাসক জন মন্টু পালমা ও লক্ষ্মীপুর মিশনের সহকারি ফাদার ব্রুসলি লামিন। বিভিন্ন ধরণের প্রতিবন্ধীদের উৎসাহ ও আনন্দ প্রদান এবং একে অন্যের সাথে পরিচিত করতে দুদিনের এই সমাবেশের আয়োজন করা হয়েছে। ১১ মে শনিবার এই সমাবেশ শেষ হয়। সমাবেশে প্রত্যেক প্রতিবন্ধীর সাথে তাদের পরিবারের একজন করে সদস্যকেও নিয়ে আসা হয়েছে। এখান থেকে পরিবারের সদস্যরা প্রতিবন্ধীদের সাথে সহমর্মি আচরণের ধারণা লাভ করবেন। প্রতিবন্ধীরা যাতে বুঝতে পারেন, পরিবারে বা সমাজে তাঁরা একা নন। তাদের সাথে আরো লোক আছেন। বিশপ বিজয় এন ডি ক্রুজ বলেন, ‘প্রতিবন্ধীরাও সুস্থ মানুষের মতো আনন্দ করতে চায়। কিন্তু পরিবারের সবাই আনন্দ করছে। তাদেরকে আলাদা করে রাখা হয়। খাবার দাবারের ক্ষেত্রে সুস্থ ও প্রতিবন্ধীর মধ্যে পার্থক্য করা হয়। এটা ঠিক না। এদের অনেকে হয়তো বুদ্ধি প্রতিবন্ধী, কেউ অন্ধ, কেউ শুনতে পায় না। তাদের সাথে ভালো ব্যবহার করতে হবে।’ জন মন্টু পালমা বলেন, ‘আমরা অনেকেই প্রতিবন্ধীর কষ্টটা বুঝতে পারিনা। বাসে দেখা যাবে একটা লোক দাঁড়াতে পারছেনা। কিন্তু আমরা উঠে তাঁকে বসার জায়গা দিতে চাইনা। আমরা অনেকে জানিনা, একই স্কুলে অন্যান্য শিশুর সাথে প্রতিবন্ধীদেরও পড়ালেখার সুযোগ আছে। যারা জানি, সেই অভিভাবকরাও সুযোগ নেইনা। শিক্ষার এই সুযোগটি নিতে হবে।’ ফাদার যোসেফ গোমেজ বলেন, ‘সবার মতো সকল মৌলিক অধিকার ভোগ করার অধিকার প্রতিবন্ধীদেরও আছে। তাদেরকে বঞ্চিত করা যাবে না।’

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত