শুক্রবার, ১৬ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ২ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মনু নদীর ৩০টি স্থান ঝুকিপূর্ণ



এম. মছব্বির আলী : অতিবৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে মনু নদীর মৌলভীবাজার পৌর শহরের বড়হাট এলাকায় বাধে ধসনামায় পৌরসভাসহ ১০টি ইউনিয়ন প্লাবিত হওয়ার আশংকা এবং উভয় তীরের ৩০ টি স্থান ঝুকিপুর্ন হয়ে পড়েছে। শনিবার সন্ধ্যা ৬ টায় পৌর শহরের বড়হাট এলাকায় মনু বাধে ধস দেখা দিলে পাউবোর লোকজন নিয়ে উক্ত স্থানে বালুভর্তি বস্তা দিয়ে প্রতিরোধের চেষ্টা করেছে। এসময় নির্বাহি প্রকৌশলী আজিজ মোহাম্মদ চৌধুরী ও উপ-বিভাগিয় প্রকৌশলী সৈয়দ মো বজলুল করীম জানান, মনু নদীর ডানপার্শ্বে আলীনগর, রাজাপুর, আশ্রয়গ্রাম, খন্দকার গ্রাম, বালিয়া গ্রাম বামপার্শ্বে নিশ্চিন্তপুর, খলিলপুর, মন্দিরা, কামারচাক, প্রেমনগরসহ ৩০টি স্থান ঝুকিপুর্ন হয়ে উঠেছে। আরো জানান, যদি এই ধস দিয়ে ভাঙ্গনের সৃষ্টি হয় তাহলে পৌরসভাসহ প্রায় ১০ টি ইউনিয়ন পস্নাবিত হবে। এ সকল ঝুকিপুর্ন স্থানের জন্য জলবায়ু পরিবর্তন প্রকল্পের আওতায় ২৫ কোটি টাকার ১টি বাজেট উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের কাছে প্রেরন করা হয়েছে । যে স্থানে ফাটল দেখা দিয়েছে সে স্থানে গত ৭ মাস আগে ফাটল দেখা দেয়ায় পৌর কর্তৃপড়্গ নিজ উদ্যোগে বাধের উপর দিয়ে যান চলাচল বন্ধ করে লিখিতভাবে পাউবোকে অবগত করে এবং বিভিন্ন মিডিয়ায় তা প্রকাশ পায়। গতকাল এ ব্যাপারে নির্বাহি প্রকৌশলীর কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান, এ স্থানটি মেরামতের জন্য টেন্ডার দিয়ে ঠিকাদার কাজও পেয়েছিল, কিন্তু বাজেটে টাকা না থাকায় ঠিকাদার কাজ করেনি, পুনরায় এ মাসে টেন্ডার করা হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত