সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিশ্বনাথে দুইদিন পর ফের ডাকাতি আহত ১ : আতংকে উপজেলাবাসি



dakati120130319081508মোহাম্মদ আলী শিপন, বিশ্বনাথ : বিশ্বনাথে দুইদিনের ব্যবধানে ফের ব্যবসায়ীর বাড়িতে ডাকাতি সংগঠিত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। গত সোমবার রাতে উপজেলার অলংকারি ইউনিয়নের রামধানা গ্রামের ব্যবসায়ী নজরুল ইসলামের বাড়িতে এঘটনা ঘটে। ডাকাতদলের হামলায় ব্যবসায়ী নজরুল ইসলাম (২৫) আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে আজ সোমবার ভোর বেলায় সিলেট ওসমানী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।
এদিকে, উপজেলায় ঘন ঘন ডাকাতি হওয়ায় আতংকে রয়েছে উপজেলাবাসি। গত কয়েক মাস ধরে উপজেলায় ডাকাতি বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে দেশে আসা প্রবাসিরাও রয়েছে আতংকে। গত শুক্রবার গভীর রাতে উপজেলার লামাকাজি ইউনিয়নের হাজারিগাঁও গ্রামের কৃষক মঈন উদ্দিনের বাড়িতে ডাকাতি সংগঠিত হয়। এসময় ডাকাতদল তিনটি ককটেল বিস্ফোরণ ঘটায়। এতে ৫ জন আহত হয়েছিলেন। ডাকাতদল কৃষকের প্রায় দুই লাখ টাকার মালামালুট করে নিয়ে যায়। ঘনঘন ডাকাতি হওয়ায় পুলিশ প্রশাসনের ব্যর্থতা বলেও অনেক মনে করেন। এলাকায় রাতে পুলিশের টহল জোরদার করার জন্য পুলিশ প্রশাসনের প্রতি এলাকাবাসি জোর দাবি জানান।
ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারের সদস্য ফয়ছল ইসলাম জানান, সোমবার রাত আনুমানিক ২টায় ১০/১২ জনের ডাকাতদল বাড়িতে প্রবেশ করে। ঘরের গ্রীলের গেইটের দুটি তালা ভেঙ্গে ডাকাতদল ঘরে ভিতরে প্রবেশ করে। এসময় পরিবারের সদস্যদের অস্ত্র মূখে জিম্মি করে রাখে। ডাকাতদল ঘরের থাকা বিভিন্ন রুমের আলমিরা ভাঙ্গার চেষ্টা করে। কিন্তু সব কয়টি আলমিরা ভাঙ্গাতে পারিনি। তবে একটি আলমিরাতে থাকা কিছু টাকা ও তিনটি মোবাইল সেট নিয়ে পালিয়ে যায়।
তিনি বলেন, ডাকাতদল ঘরের আসবাবপত্র তছনছ করে পালিয়ে যাওয়ার সময় তার ভাই নজরুল ইসলামকে কুপিয়ে আহত করে। পরে তাদের আত্বচিৎকারের আশপাশের লোকজন ছুটে আসার পূর্বেই ডাকাতদল পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। এঘটনায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানাগেছে।
এব্যাপারে বিশ্বনাথ থানার পরিদর্শক আবুল কালাম আজাদ বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদশন করেছে। তবে মামলা হলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত