বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মাহমুদুর রহমানকে জোর করে কারাগারে নেওয়ার অভিযোগ



36094_mahদৈনিক আমার দেশ পত্রিকার ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক মাহমুদুর রহমানকে জোর করে হাসপাতাল থেকে কারাগারে নিয়ে যাওয়ার অভিযোগ ওঠেছে পরিবার ও সহকর্মীদের পক্ষ থেকে।
রিমান্ডে পুলিশি নির্যাতনে গুরুতর অসুস্থ মাহমুদুর রহমানের চিকিৎসা শেষ না হতেই সোমবার বিকাল তিন টার দিকে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে স্থানান্তর করা হয়। তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় হাসপাতালে (বিএসএমএমইউ) চিকিৎসাধীন ছিলেন। চিকিৎসকদের মতামত উপেক্ষা করেই তাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে তার পারিবারিক সূত্র জানিয়েছে।
চিকিৎসকরা জনান, তার শারীরিক অবস্থা এখনও খুবই খারাপ। কারা কর্তৃপক্ষের চাপে হাসপাতাল থেকে যে ছাড়পত্র দেয়া হয়েছে, তাতেও মাহমুদুর রহমানের গুরুতর অসুস্থতার চিত্র রয়েছে। চিকিৎসকরা তাকে আট ধরনের ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন। ছাড়পত্রে চিকিৎসকরা মাহমুদুর রহমানকে গরম পানিতে তোয়ালে ভিজিয়ে ঘাড়ে ও কোমরে সেঁক েেদয়া, বাথরুমে হাইকমোড ব্যবহার করা, আড়াই ইঞ্চি পুরু তোশকে শক্ত ও সমান বিছানায় ঘুমানো, বেশিদূর ভ্রমণ না করা, একটানা আধা ঘণ্টার বেশি দাঁড়িয়ে বা বসে না থাকা, সামনে ঝুঁকে কোনো কাজ না করা, এমনকি শারীরিক ও মানসিক চাপ এড়িয়ে চলার পরামর্শ দিয়েছেন। এসব পরামর্শ যথাযথ অনুসরণ না করলে শারীরিক অবস্থার অবনতি ঘটতে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। কিন্তু জেলখানায় মাহমুদুর রহমান ডাক্তারদের এসব পরামর্শ কীভাবে মেনে চলবেন, সে প্রশ্ন দেখা দিয়েছে। সরকারের মহলবিশেষের চাপে মাহমুদুর রহমানকে চিকিৎসাবঞ্চিত করে ঝুঁকির মুখে ঠেলে দেয়া হয়েছে।
আগের দিন রবিবারই কারা পুলিশ মাহমুদুর রহমানকে জোর করে প্রিজন সেলে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। কিন্তু চিকিৎসকরা বাধা দিয়ে বলেন, কোনো অঘটন ঘটলে তার দায়িত্ব তারা নেবেন না। এ অবস্থায় কারা পুলিশ ফিরে যায়। কিন্তু একদিনের ব্যবধানেই মহলবিশেষের চাপে তাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হলো।
হাসপাতাল থেকে তাকে গাজীপুরের কামিশপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-২-এ স্থানান্তর করা হয়েছে। মাহমুদুর রহমান ও প্রবীণ রাজনীতিবিদ এম কে আনোয়ারকে একটি জরাজীর্ণ প্রিজন-ভ্যানে দাঁড় করিয়ে কারাগারে নেয়া হয়। রাস্তায় উত্তরায় আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) কার্যালয়ের সামনে গিয়ে গাড়িটি বিকল হয়ে যায়। পরে সিটি মেরামত করে আবার গাজীপুরের উদ্দেশে রওনা হয়। সন্ধ্যার পর গাড়িটি কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারে পৌঁছে। দীর্ঘ কয়েক ঘণ্টা গাড়িতে দাঁড়িয়ে থাকার কারণে মাহমুদুর রহমানের কোমরে তীব্র ব্যথা অনুভব হয়। এতে তিনি ফের অসুস্থ হয়ে পড়েন।
উল্লেখ্য, গত ১১ এপ্রিল মাহমুদুর রহমানকে আমার দেশ কার্যালয় থেকে গ্রেফতারের পর রিমান্ডে নিয়ে ডিবি অফিসে নির্মম নির্যাতন চালানো হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। ১৮ এপ্রিল সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় মাহমুদুর রহমানকে আদালতে হাজির করে চিকিৎসার জন্য বিএসএমএমইউর আইসিইউতে ভর্তি করা হয়।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত