রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

ভুলেও যারা আদা খাবেন না



full_655876098_1451892079সাস্ব্য ডেস্ক: প্রায় ৫ হাজার বছর আগে থেকেই রান্না ও ওষুধ হিসেবে এশিয়ার বিভিন্ন দেশে আদার ব্যবহার হয়ে আসছে। ঠাণ্ডা কাশি থেকে শুরু করে হাত-পায়ের ব্যথা দূর করতে আদা অনেক বেশি কার্যকরী।

এমনকি ওজন কমাতেও আদা খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন বিশেজ্ঞরা।

কিন্তু আদা উপকারী হলেও কিছু মানুষের জন্য আদা খাওয়া মোটেও উচিত নয়। অনেকেই মনে করেন আদা প্রাকৃতিক মশলা, এর আবার ক্ষতিকর দিককি। কিন্তু অনেকের জন্য আদা খাওয়া উচিত না-

১। গর্ভবতী মহিলাদের জন্য
গর্ভবতী মহিলাদের আদা খাওয়া একদমই উচিত নয়। আদাতে প্রচুর পরিমাণে প্রাকৃতিক উত্তেজক আছে। যা অনেক সময় মিসক্যারেজ বা প্রিম্যাচিউর বাচ্চা জন্ম দিয়ে থাকে। তাই এই সময় আদা বা আদা জাতীয় খাবার এড়িয়ে যাওয়া উচিত।

২। যাদের আলসার আছে
যারা আলসারে ভুগছেন তাদের মোটেও আদা খাওয়া ঠিক নয়। আদা খেলে আলসারের সমস্যা আরো বেড়ে যাওয়ার সম্ভবনা থাকে। তাই আলসার থাকলে আদা খাওয়া বন্ধ করুন।

৩। যাদের ওজন কম
ওজন কমানোর অন্যতম উপাদান হল আদা। এটি মেটাবলিজম বৃদ্ধি করে খাওয়ার রুচি কমিয়ে দেয়। এটি দেহের ক্যালরি পোড়াতে সাহায্য করে। এই সকল কারণে ডায়েট লিস্টে আদা রাখা হয়। কিন্তু আপনি যদি ওজন বাড়াতে চান তবে আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। আদা আপনার ওজন আরও কমিয়ে দেবে।

৪। রক্তে সমস্যা থাকলে
আদা রক্তে প্রদাহ বৃদ্ধি করে থাকে। কিন্তু যাদের হিমোফিলিয়া রক্ত রোগ আছে তাদের জন্য এটি ভয়ংকর হতে পারে। যারা বিভিন্ন রক্ত রোগের ওষুধ খাছেন, তারা আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

৫। যারা ওষুধ খাচ্ছেন
যারা কোন নিদিষ্ট রোগের জন্য ওষুধ খাচ্ছেন, তারা আদা খাওয়া থেকে বিরত থাকুন। আদার উপাদান ওষুধের সাথে মিশে শরীরে পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করতে পারে। এটি রক্ত কনিকা বৃদ্ধি করতে পারে। এমনকি ব্লাড প্রেশার, ইনসুলিনও বৃদ্ধি করে দিতে পারে।

৬। প্রদাহজনিত পেটের রোগ
যারা প্রদাহজনক পেটের রোগে ভুগছেন তারাও আদা খাবেন না। আদা প্রদাহ বৃদ্ধি পেটের রোগ আরো বাড়িয়ে দেয়। তাই এ সমস্যা থাকলে আদা বা আদার তৈরি খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকুন।

সূত্র: কিউরজয়

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত