রবিবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কারাগারে ‘মেয়ে সাপ্লাই’ ছাড়া সব করা হয়!



15নিউজ ডেস্ক ::
‘কারাগারে সব কিছুই করা যায়। শুধু পুরুষ বন্দির সাথে মেয়ে সাপ্লাই দেয়া যায় না আর মেয়ে বন্দির সাথে পুরুষ সাপ্লাই দেয়া যায় না।’
বুধবার (১৩ জানুয়ারি) রাজধানীর বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউটে (পিআইবি) কারা কর্মকর্তাদের গণমাধ্যম বিষয়ক কর্মশালা উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এ কথা বলেন। এ সময় বিভিন্ন জেলার জেল সুপাররা উপস্থিত ছিলেন।তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কারাগারে অবৈধ জিনিসের আদান-প্রদান করা হয়। এমনকি মদ চাইলেও মদ পাওয়া যায়।’জেলসুপারদের উদ্দেশ্যে মন্ত্রী বলেন, ‘আমি বরিশালে থাকাকালে ডাব সাপ্লাইয়ের নাম করে মদ সাপ্লাই দেয়া দেখেছি। এমনকি এখন কারাগারে মোবাইল দিয়েও চাঁদাবাজি করা হয়। আর এসবের দায় কিন্তু আপনাদের।তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘কারাগার পৃথিবীর সভ্যতার শুরু থেকেই গণতন্ত্রের সাথে জড়িত আছে। কারাগার সম্পর্কে সাধারণ মানুষের খারাপ ধারণা আছে। আর তথ্যের অবাধ প্রবাহ না থাকায় ভুল ধারণা থেকেই যায়। বাইরের মানুষ মনে করে কারা কর্তৃপক্ষ দানবীয়, তারা কয়েদির সঙ্গে সবসময় দানবীয় আচরণ করে। যদি মিডিয়ার মাধ্যমে সাধারণ মানুষকে আপনাদের কর্মকাণ্ড সম্পর্কে জানান, তাহলে সাধারণ মানুষ আর এসব ভুল ধারণা করবে না।’তিনি কারা কর্তৃপক্ষের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘মৌখিক নির্দেশে কারাগার চালালে গণতন্ত্র ক্ষতিগ্রস্ত হয়। আপানারা যদি এরকম করে থাকেন তাহলে এটা ঠিক না। পরে গিয়ে স্থানীয় এমপি বা স্থানীয় প্রভাবশালী নেতাকে জনগণ ধরবে না। দিনশেষে তা প্রধানমন্ত্রীর ওপরই পরবে। অথচ প্রধানমন্ত্রীর এ ব্যাপারে কিছুই জানেন না।’
কারা কর্তৃপক্ষকে তিন মাস পরপর অন্তত একবার করে হলেও স্বেচ্ছায় প্রেস ব্রিফিং করে সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর দেয়ার পরামর্শ দেন মন্ত্রী। বলেন, ‘৩০ হাজার লোক থাকতে পারে এমন জায়গায় ৭৫ হাজার মানুষকে কীভাবে পরিচর্যা করছেন, কীভাবে চালাচ্ছেন তা জনগণকে অবহিত করুন।’তিনি আরো বলেন, ‘পাপকে ঘৃণা করো, পাপীকে নয়। তারা অপরাধী হলেও তাদের একটা মানবিক গুণাবলি আছে। কারাগার হলো শোধনাগার।’অনুষ্ঠানে পিআইবির মহাপরিচালক মো. শাহ আলমগীরের সভাপতিত্বে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রিজন সেলের আইজিপি ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন, তথ্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এএসএম মাহবুবুল আলম। এতে শুভেচ্ছা বক্তব্য দেন পিআইবির প্রশিক্ষণ বিভাগের পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত