বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সুখী-সুন্দর দেশ গঠনে সবাইকে আন্তরিক হয়ে কাজ করতে হবে—-সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. মোমেন



D. A K Mumen Picজাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক স্থায়ী প্রতিনিধি ও সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. এ কে আব্দুল মোমেন বলেছেন, একটি সুখী-সুন্দর দেশ গঠনে সবাইকে আন্তরিক হয়ে কাজ করতে হবে। বিশেষ করে সমাজের অবহেলিত জনসাধারণের মৌলিক চাহিদা পূরণে ও তাদের কল্যাণ সাধনে দলমত নির্বিশেষে সকলকে ঐক্যবদ্ধ হওয়া প্রয়োজন। প্রবাসীদের সংগঠন ‘গ্রেটার লামাকাজী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউ.কে’ জন্মলগ্ন থেকে আত্মসামাজিক উন্নয়নে বিভিন্নভাবে বিশেষ অবদান রেখে যাচ্ছে। প্রবাসীদের মাধ্যমে এই সংগঠনের কর্মতৎপরতাকে আরো গতিশীল ও তরান্বিত করতে আমাদের সার্বিক সহযোগিতা থাকা উচিত।

গ্রেটার লামাকাজী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউ.কে আয়োজিত ৮ম চক্ষু শিবিরের ৩য় ক্যাম্পে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি আরো বলেন, বর্তমান সরকারের সফল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাত ধরে দেশ আজ সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে। আর এইসকল অগ্রগতি অর্জনে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে প্রবাসীদের দূরদর্শী কর্মকান্ড সহায়ক ভূমিকা পালন করছে।

২০ জানুয়ারি বুধবার সকালে জালালাবাদ থানার মোগলগাও ইউনিয়নের সৈয়দপুর দাখিল মাদ্রাসায় গ্রেটার লামাকাজী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউ.কে’র উদ্যোগে ও ভার্ড চক্ষু হাসপাতালের সহযোগিতায় এবং মো. কছির মিয়া ও মো. শাহীন মিয়ার যৌথ অর্থায়নে চক্ষু শিবিরের ৩য় ক্যাম্পের আয়োজন করা হয়। গ্রেটার লামাকাজী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউ.কে এর সভাপতি মোহাম্মদ শাহনূর এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ছাতক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অলিউর রহমান চৌধুরী বকুল, বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ সেলিনা মোমেন, গ্রেটার লামাকাজী ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন ইউ,কে’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি ও অন্যতম পৃষ্ঠপোষক মো. হিরণ মিয়া, সাবেক সভাপতি দৌলত খান বাবুল, বাসস সিলেট জেলা সভাপতি মকসুদ আহমদ, বিশিষ্ট সমাজসেবী জাবেদ সিরাজ, ভার্ড চক্ষু হাসপাতালের ম্যানেজার মহি উদ্দিন ।
১নং লামাকাজী ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান এনামুল হক এনাম ও আব্দুল বাছিত এর যৌথ পরিচালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের বাংলাদেশে কমিটির সাবেক সভাপতি ডা. শাহনূর হোসাইন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের বাংলাদেশ কমিটির সাবেক সহ-সভাপতি হাজী সামছুদ্দিন, সাবেক জয়েন্ট সেক্রেটারী ফয়সল আহমদ, বিশিষ্ট সমাজসেবক আমির আহমদ মোস্তফা, সৈয়দপুর দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওলানা মো. হাবিবুর রহমান, এলাকার বিশিষ্ট মুরুব্বি হাজী মো. তাহির আলী পাখী মিয়া মেম্বার, আজাদ মিয়া, ইউপি আ.লীগের সেক্রেটারী আশিক মিয়া প্রমুখ। ৮ম চক্ষু শিবিরের ৩য় ক্যাম্পে ৪৬২জন চোখের রোগীকে চিকিৎসা সেবা প্রদান করা হয়। এর মধ্যে ৩২০জনকে ঔষধ, ১৫২জনকে চশমা প্রদান করা হয় এবং ৩১জনকে ভার্ড চক্ষু হাসপাতালে নিয়ে অপারেশন করা হয়।-সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত