মঙ্গলবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশকে নিরক্ষরতামুক্ত করবো: প্রধানমন্ত্রী



17নিউজ ডেস্ক ::
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, বর্তমান সরকার শিক্ষাকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব প্রদান করেছে। বর্তমান অর্থমন্ত্রীও শিক্ষার ব্যাপারে খুব আন্তরিক। তিনি বলেন, বাংলাদেশকে আমরা নিরক্ষরতামুক্ত করবো। সাক্ষরতার হার ৭১ শতাংশে উন্নীত করেছি। এটি শতভাগে নিয়ে যাওয়া আমাদের লক্ষ্য। কারণ, শিক্ষিত জাতি ছাড়া দারিদ্রতামুক্ত দেশ গড়া সম্ভব নয়।আজ (বৃহস্পতিবার) সিলেট মদন মোহন কলেজের ৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিতের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, “সবাই একটি দাবি জানাচ্ছেন মদন মোহন কলেজকে সরকারীকরণ করার। আমি বুঝি না, যে কলেজের সাথে অর্থমন্ত্রী জড়িত আছেন সেটি সরকারিকরণ করতে সমস্যা কী? মদন মোহন কলেজকেও সরকারি করতে কোনো সমস্যা থাকার কথা নয়।”প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, “আগে সিলেটে শিক্ষার হার ছিলো খুব কম। আমরা ক্ষমতায় এসে সিলেটকে শিক্ষায় এগিয়ে নিতে এই এলাকা থেকে একজনকে শিক্ষামন্ত্রীর দায়িত্ব দেই। অর্থমন্ত্রীও করি সিলেট থেকে। শিক্ষামন্ত্রীকে ধন্যবাদ তিনি এই দায়িত্বে সফল হয়েছেন।”শিক্ষা প্রসারে বিত্তবানদের আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, “শিক্ষার প্রসারে সরকারের পাশাপাশি সমাজের বিত্তবানদের এগিয়ে আসতে হবে। আমাদের দেশে বেশিরভাগ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই সমাজের বিত্তবানরা স্থাপন করেছেন। মদন মোহন কলেজ সেরকমই একটি প্রতিষ্ঠান।”শেখ হাসিনা বলেন, “আমরা উচ্চ শিক্ষায়গুরুত্বারোপ করেছি। দেশে প্রথম মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করেছি। সিলেটেও মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন করা হবে। প্রতি জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় করবো। তবে সব সরকারিভাবে করা সম্ভব নয়। বেসরকারি উদ্যোগেও হতে পারে। প্রতিটি উপজেলায় সরকারি বিদ্যালয় ও কলেজ স্থাপন করা হবে। আমরা চাই দেশ এগিয়ে যাক, উন্নত সমৃদ্ধ হোক।”ঐতিহ্যবাহী কলেজটির ৭৫ বছর পূর্তি অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজ অধ্যক্ষ ড. আবুল ফতেহ। এছাড়া বিশেষ অতিথি ছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ, অর্থ ও পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান।অনুষ্ঠানে মদন মোহন কলেজের সাবেক শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও বিশিষ্টজনরাও অংশ নেন। দু`দিনব্যাপী এ অনুষ্ঠান শেষ হবে শুক্রবার।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত