বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কাষ্টমসে হয়রানি বন্ধের দাবি রিয়াদের কার্গো ব্যবসায়ীদের



3নিউজ ডেস্ক ::
প্রবাসীদের নিত্যব্যবহারিক মালামাল কার্গো করে দেশে পাঠানোর সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রনয়ণ ও কাষ্টমসে হয়রানি বন্ধের দাবিতে সাংবাদ সম্মেলন করেছে ব্যবসায়ী সংগঠন-রিয়াদ কার্গো অ্যাসোসিয়েশন।বৃহস্পতিবার (২১ জানুয়ারি) রিয়াদের বাথা আল রাজীহ বিল্ডিং এ জরুরি সাংবাদ সম্মেলন করে সংগঠনটি।সংগঠনের সভাপতি মো. আব্দুস সাত্তারের সভাপতিত্বে সিনিয়র যুগ্ম সম্পাদক নাইমুল হক রিপনের সঞ্চালনায় সংবাদ সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন-অ্যাসোসিয়েশনের প্রধান উপদেষ্টা এ কে এম ওয়াহিদুল করিম, সিনিয়র সহ-সভাপতি গোলাম মহিউদ্দিন, সহ-সভাপতি হাজী আলমগীর হোসেন, সহ-সভাপতি সফিকুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক সহিদুল ইসলাম, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক নজরুল ইসলাম, উপদেষ্টা আবু তাহের ভূঁইয়া, হেলাল সরকার, আজাদ, স্বপন প্রমুখ।বক্তারা বলেন, প্রবাসীরা কষ্ট ও শ্রমের টাকা দিয়ে তাদের পরিবারের নিকট মালামাল পাঠান। সেই মালামালকে কাষ্টমস কমিশনাররা বাণিজ্যিক মালামাল বলে ও নানা অজুহাতে কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিচ্ছেন।শুধু তাই নয়, কাঙ্খিত পরিমাণ টাকা না পেলে নানা কারণ দেখিয়ে পাঁচ ছয় মাস পর্যন্ত আটকে রাখা হয় এসব মালামাল। যার ফলে এসব মালামালের ৮০ ভাগই নষ্ট হয়ে যায়। এতে ক্ষতিগস্ত হচ্ছেন প্রাবসীরা।
তাই সুনির্দিষ্ট নীতিমালা প্রনয়ণ করে সম্ভাবনাময় এই খাতকে বাঁচানোর দাবি জানান কার্গো ব্যবসায়ীরা।তারা আরো বলেন, ঢাকা কাষ্টমস কর্তৃপক্ষের এসব নৈরাজ্যের কারণে কার্গো ব্যবসায়ীরা তাদের কাস্টমারদেরকে নষ্ট বা হারিয়ে যাওয়া মালামালের ক্ষতিপূরণ দিতে দিতে পথে বসে যাচ্ছে। দিন দিন কাস্টমারদের সঙ্গে ব্যবসায়ীদের দূরত্ব তৈরি হচ্ছে। সেই কারণে কাষ্টমাররা অনেক সময় তাদের সৌদি মালিক (স্পন্সর) নিয়ে আসছেন এতে প্রবাসী ব্যবসায়ীদের তথা বাংলাদেশের সুনাম ক্ষুণ্ণ হচ্ছে।রিয়াদ কার্গো অ্যাসোসিয়েশন সাংবাদিক সম্মেলনের মাধ্যমে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও প্রবাসী কল্যাণ মন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে বিষয়টি সুরাহারা দাবি জানান।
উল্লেখ্য সৌদি আরবে বসবাসরত অন্য দেশের নাগরিকরা আমাদের থেকে আরও কম খরচে মাত্র সাত থেকে দশ দিনের ভেতরে তাদের পাঠানো মালামাল অক্ষত অবস্থায় তাদের পরিবার পেয়ে যাচ্ছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত