সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

চলে গেলেন সাংবাদিক আলতাফ মাহমুদ



3নিউজ ডেস্ক ::
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের (বিএফইউজে) সভাপতি সাংবাদিক আলতাফ মাহমুদ আর নেই। রোববার সকাল ৮টা ৪০ মিনিটের দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি মৃত্যুবরণ করেন (ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন)।বিএফইউজের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।আলতাফ মাহমুদের প্রথম নামাজে জানাজা ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটিতে (ডিআরইউ) বেলা সাড়ে ১১টায় অনুষ্ঠিত হবে। দ্বিতীয় জানাজা হবে জাতীয় প্রেসক্লাবে দুপুর ১২টায়।সাংবাদিক আলতাফ মাহমুদের মৃত্যুতে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।এক শোকবার্তায় রাষ্ট্রপতি বলেছেন, আলতাফ মাহমুদের মৃত্যুতে দেশ একজন একনিষ্ঠ সংবাদকর্মীকে হারাল।প্রধানমন্ত্রীর প্রেস সচিব ইহসানুল করিম বলেন, মৃত্যুর খবর পাওয়ার পর গভীর শোক প্রকাশ করেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি আলতাফ মাহমুদের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন ও শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানান।সাংবাদিক নেতা মঞ্জুরুল আহসান বুলবুল ডিআরইউ ও প্রেসক্লাবে আলতাফ মাহমুদের জানাজার সময়সূচি সাংবাদিকদের জানান। প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক কামরুল ইসলাম চৌধুরীও দুপুর ১২টায় প্রেসক্লাবে জানাজা হবে বলে জানিয়েছেন।আলতাফ মাহমুদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, জানাজার পর মরদেহ তার ঢাকার ভাড়া বাসায় নিয়ে যাওয়া হবে। সেখান থেকে মরদেহ নিয়ে যাওয়া হবে তার গ্রামের বাড়ি পটুয়াখালীতে। গ্রামের বাড়িতে বাবার কবরের পাশেই তাকে সমাহিত করা হবে।গত ১৪ জানুয়ারি স্পাইনাল কডের সমস্যা, মাথার পেছনে ও ঘাড়ে ব্যথার কারণে আলতাফ মাহমুদকে বিএসএমএমইউ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তিনি নিউরোসার্জন অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়ার অধীনে হাসপাতালের ৩১১ নম্বর কেবিনে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত বৃহস্পতিবার তার মেরুদণ্ডে অস্ত্রোপচার করা হয়।
সত্তরের দশকে সাংবাদিকতা পেশায় আসেন আলতাফ মাহমুদ। বিভিন্ন টেলিভিশনের টক শোতেও তাকে দেখা গেছে রাজনৈতিক বিশ্লেষক হিসেবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত