বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ পৌষ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

রাব্বীকে নির্যাতন: ‘মামলা গ্রহণে বাধা নেই’



mahabub_khokon_banglanews24_704534683নিউজ ডেস্ক: বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তা গোলাম রাব্বীকে নির্যাতনের ঘটনায় ‘মামলা নিতে এখন কোনো বাধা নেই’ বলে জানিয়েছেন এ ঘটনায় দায়ের হওয়া রিট আবেদনের পক্ষের আইনজীবী ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

বুধবার (২৭ জানুয়ারি) সুপ্রিম কোর্ট বার ভবনের ল’ রিপোর্টার্স ফোরামের কার্যালয়ে সাংবাদিকদের কাছে এমন মন্তব্য করেন তিনি।

এর আগে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত মামলা গ্রহণে হাইকোর্টের আদেশের ওপর স্থগিতাদেশ দেন সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালত। তারিখ অতিক্রান্ত হওয়ায় তাই এখন আর মামলা গ্রহণে বাধা নেই।

মাহবুব উদ্দিন খোকন বলেন, “যেহেতু স্থগিতাদেশ বাড়ানো হয়নি তাই হাইকোর্টের আদেশ বহাল রয়েছে। এখন মোহাম্মদপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মামলা গ্রহণ করতে পারেন”।

গত ০৯ জানুয়ারি রাতে রাজধানীর মোহাম্মদপুর থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকের সহকারী পরিচালক গোলাম রাব্বীকে আটক করেন মোহাম্মদপুর থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মাসুদ শিকদারসহ কয়েকজন পুলিশ সদস্য। ইয়াবা বিক্রেতা হিসেবে আদালতে চালান দেওয়ার ভয় দেখিয়ে পাঁচ লাখ টাকা আদায়ের চেষ্টা করেন তারা। এরপর রাত ৩টা পর্যন্ত তাকে নিয়ে মোহাম্মদপুরের বিভিন্ন রাস্তায় ঘুরে বেড়ান এবং মারধর করেন। এমনকি তাকে বেড়িবাঁধে নিয়ে ক্রসফায়ারে হত্যার হুমকিও দেন।

পরদিন সকালে এ বিষয়ে মোহাম্মদপুর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন রাব্বী। সেটি এখনও মামলা হিসেবে রুজু করেনি থানা।

ব্যাংক কর্মকর্তা রাব্বীকে এসআই মাসুদের নির্যাতন এবং যাত্রাবাড়ীতে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের পরিদর্শককে ওই থানা পুলিশের মারধরের ঘটনা তদন্তে অতিরিক্ত ডিআইজি ব্যারিস্টার হারুন অর-রশিদকে প্রধান করে তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করে পুলিশ সদর দফতর।

গোলাম রাব্বীকে নির্যাতনের ঘটনা প্রাথমিকভাবে প্রমাণিত হওয়ায় এসআই মাসুদকে গত ১৬ জানুয়ারি সাময়িকভাবে বরখাস্ত করা হয়েছে। এর আগে ১১ জানুয়ারি সকালে তাকে মোহাম্মদপুর থানা থেকে প্রত্যাহার করা হয়।

এরপর এ ঘটনায় মামলা নেওয়া ও তিন কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ চেয়ে গত ১৭ জানুয়ারি হাইকোর্টে রিট আবেদনটি করেন সাংবাদিক জাহিদ হাসান এবং দুই আইনজীবী ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান ও এস এম জুলফিকার আলী জুনু।

পরদিন হাইকোর্ট রাব্বীর ১১ জানুয়ারি দেওয়া অভিযোগ এজাহার হিসেবে নেওয়ার নির্দেশ দেন। এছাড়াও গোলাম রাব্বীকে নির্যাতন কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না এবং রাব্বীর অভিযোগ এজাহার হিসেবে নেওয়ার নির্দেশ কেন দেওয়া হবে না- তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন। দুই সপ্তাহের মধ্যে রুলের জবাব দিতেও বলে আদালত।

কিন্তু রাষ্ট্রপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে ২১ জানুয়ারি রাব্বীকে নির্যাতনের ঘটনায় মামলা নিতে হাইকোর্টের নির্দেশ ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত স্থগিত করেছেন সুপ্রিম কোর্টের চেম্বার আদালত।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত