সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

‘শাক দিয়ে মাছ ঢাকতে বঙ্গবন্ধু পরিবারের নাম ভাঙ্গানো হচ্ছে’



8নিউজ ডেস্ক ::
নারায়ণগঞ্জ ৪ আসনের সংসদ সদস্য শামীম ওসমান সিটি মেয়র সেলিনা হায়াত আইভীর দূর্ণীতি ও দল বিরোধী কর্মকান্ডের ইঙ্গিতের কথা উল্লেখ করে বলেছেন, আগামী ১৬ ই মার্চ নগর ভবনের সামনে বিশাল জনসভায় অনেক কথা বলব। তারপর করব। আর করতে যে পারি তাও দেখাব। গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যায় নারায়ণগঞ্জ শহরের ডিআইটি এলাকায় মহানগর আওয়ামীলীগ আয়োজিত প্রয়াত আওয়ামীলীগ নেতা মফিজুল ইসলাম স্মরণে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।
তিনি সিটি করপোরেশনের দূর্নীতর প্রসঙ্গে তিনি বলেন, সিটি করপোরেশনে কয়েকশ কোটি টাকার দূর্ণীতি হয়েছে। আইভীর প্রিয় বন্ধু সুফিয়ান যিনি মদ ও মেয়েসহ পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছেন তার নামে পদ্মা ভবনে ১৭টি দোকান। দূর্ণীতির করে শাক দিয়ে মাছ ঢাকতে এখন বঙ্গবন্ধু পরিবারের নাম ভাঙ্গানো হচ্ছে। দূর্ণীতি ঢাকতে বন্দর উপজেলার সোনাকান্দায় ইকো পার্কের নাম পাল্টে শেখ রাসেল পার্ক ও আইভী নিজের বাবার নামের সাইনবোর্ড সরিয়ে রেলওয়ের জায়গা দখল করতে বঙ্গমাতা বেগম ফজিলাতুন্নেছা নামে হাতিরঝিল আদলে পার্ক করতে চাইছেন।
শামীম ওসমান আইভীকে উদ্দেশ্যে করে বলেন, ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারীর নির্বাচনের পর প্রথম আলোর গোল টেবিলে বসে বলেছেন নেত্রী সন্ত্রাসী পালেন। যুগান্তরের গোল টেবিলে আওয়ামীলীগ সরকারের আমলকে বলেছেন বাংলাদেশ ধ্বংস হয়ে গেছে। এখন পিঠ বাঁচাতে আওয়ামীলীগ সরকারের সহযোদ্ধা হতে চান। আইভীকে তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে উপাধি দেন যে খালেদা জিয়া গণতন্ত্র চান। আর শেখ হাসিনা গণতন্ত্র রাখতে চেষ্টা করেন। সব আমলেই সব জায়গায় বেঈমান ছিল। আমাদের নারায়ণগঞ্জেও আছে। যেমন খন্দকার মোশতাকরা ছিল।
ঠিক নারায়ণগঞ্জেও খন্দকার মোশতাকদের দল আছে। তাদের মুখোশ খুলে দেব। সুযোগ পেলে নৌকায় আগুন ও পাল ছিড়তে চান। আর বিপদে পড়লে নৌকার পালে হাওয়া দিতে চান তা হবে না। আগামী ১৬ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন পালন হবে নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন ভবনের সামনের খালি জায়গায়। সেখানে লক্ষাধিক লোকের সামগম ঘটানো হবে।
তিনি উপস্থিত নেতা কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, সেই দিন অনেক কথা বলব। আপনারা শুনবেন । বলব, আর যা বলব তা করে দেখাব। আপনারা দেখবেন কথা বলছি আর যা বলছি তা করে দেখাব।
তিনি ত্যাগী নেতা কর্মীদের আশস্ত করে বলেন , ৭৫ এর পর থেকে বঙ্গবন্ধু, শেখ হাসিনা ও নৌকার সঙ্গে যারা বেঈমানী করেনি তাদের সবাইকে মূল্যায়ন করা হবে। আপনারা হতাশ হবেন না।
আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন মহানগর আওয়ামীলীগের সভাপতি আনোয়ার হোসেন। অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মহানগর আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট খোকন সাহা, জেলা আইনজীবি সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট আনিসুর রহমান দীপু, শহর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সম্পাদক শাহ নিজাম, সাংগঠনিক সম্পাদক জাকিরুল আলম হেলাল, যুবলীগ নেতা আবু হাসনাত মো: শহীদ বাদল, আওয়ামীলীগ নেতা শওকত আলী, মজিবর রহমান, শহর যুবলীগের সভাপতি শাহাদাত হোসেন সাজনু, সিটি করপোরেশনের কাউন্সিলর ইসরাত জাহান স্মৃতি, জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মিজানুর রহমান সুজন প্রমুখ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত