রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বাহুবলে যুবসংহতির সভাপতিকে হত্যা,লাশ গুম



5হবিগঞ্জ সংবাদদাতা : হবিগঞ্জের বাহুবল উপজেলার মিরপুর ইউনিয়ন যুবসংহতির সভাপতি মো. রফিক মিয়াকে হত্যা করে লাশ গুম হবার খবর পাওয়া গেছে। শনিবার দিবাগত রাত ১ টায় উপজেলার পশ্চিম জয়পুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, মো. রফিক মৃত আব্দুর রহমানের ছেলে। খাওয়া-দাওয়া শেষ করে রাত ১২টার দিকে সবাই ঘুমিয়ে পড়লে আর তাকে ঘরে পাওয়া যায়নি।

রাত ২টার দিকে রুমে না পেয়ে খুজাখুঁজির একপর্যায়ে বাড়ির পাশে জমিতে চুপচুপ রক্তের দাগ, তার পরনের গেঞ্জি ও লুঙ্গি দেখতে পায় তার স্বজনরা।

রোববার সকাল সাড়ে ৭টায় পুলিশ গিয়ে বাড়ির পাশ থেকে রক্তমাখা গেঞ্জি, হত্যায় ব্যবহৃত রক্তমাখা কুড়াল ও পাশের একটি পুকুর থেকে তার পরনের লুঙ্গি উদ্ধার করে।

এ ঘটনায় পাশের ঘরের জাহির মোল্লা নামের একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

নিহতের ছোট ভাই ছাদিক মিয়া জানান, আমার বাড়ির রাস্তা নিয়ে পাশের ঘরের জাহির মোল্লা ও হাশিম মিয়া সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছিল। গত তিন মাস আগে বাহুবল-নবীগঞ্জের এমপি এম এ মুনিম চৌধুরী বাবু আমাদের বাড়িতে আসতে চাইলে বিরোধীয় রাস্তায় এমপিকে আসতে বাধা দেয়া হয়। পরে বাহুবল উপজেলা চেয়াম্যানের মধ্যস্থতায় এমপিকে আমাদের বাড়িতে ঢুকতে দেয় তারা। তার দাবি এরই জের ধরে তার ভাইকে হত্যা করে লাশ গুম করা হয়েছে।

এ ব্যপারে বাহুবল উপজেলা চেয়ারম্যান আব্দুল হাই বলেন, এই রাস্তা নিয়ে বিরোধীয় বিষয়টি অনেক বার চেষ্টা করেছি মিমাংশা করতে।

বাহুবল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোশাররফ হোসেন জানান, আমি ঘটনাস্থলে আছি, আলামতও জব্দ করেছি, রফিককে খোঁজ করা হচ্ছে, তবে হত্যা না অন্যকিছু এই মুহূর্তে বলা যাচ্ছে না।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত