শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কাল রিভিউ আবেদন করবেন নিজামী



22নিউজ ডেস্ক :: একাত্তরে মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে আপিল বিভাগের চূড়ান্ত রায়ে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত জামায়াতে ইসলামীর আমির মতিউর রহমান নিজামী রায় পুনর্বিবেচনা (রিভিউ) আবেদন করবেন আগামীকাল।
সোমাবার মতিউর রহমান নিজামীর ছেলে ব্যারিস্টার নাজিব মোমিন জানান, তার বাবা মঙ্গলবার রিভিউ আবেদন করবেন।
নাজিব মোমিন বলেন, ‘রায় প্রকাশের পর নিয়ম অনুযায়ী ১৫ দিনের মধ্যে রিভিউ আবেদন করতে হয়। সে হিসেবে ৩১ মার্চ পর্যন্ত আমাদের সময় রয়েছে। কিন্তু আমরা আগেই রিভিউ আবেদন করব। আশা করি, সর্বোচ্চ আদালত রায় পুনর্বিবেচনা করে ন্যায়বিচার করবেন।’
এর আগে গত ৬ জানুয়ারি নিজামীর ফাঁসির আদেশ বহাল রেখে রায় দেয় সুপ্রীম কোর্টের আপিল বিভাগ। গত ১৫ মার্চ মৃত্যুদণ্ড দিয়ে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ রায় প্রকাশ করা হয়। নিজামীকে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের ৪টি অভিযোগে দেওয়া ফাঁসির রায়ের ৩টি ও ৪টি অভিযোগে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া রায়ের মধ্যে ২টিকে বহাল রেখেছেন আপিল বিভাগ।
এর মধ্যে ২, ৬ ও ১৬ নম্বর অভিযোগে পাবনার বাউশগাড়ি, ডেমরা ও রূপসী গ্রামের প্রায় সাড়ে ৪০০ মানুষকে পাকিস্তানি সেনা কর্তৃক হত্যা ও ৩০-৪০ জন নারীকে ধর্ষণ; পাবনার ধুলাউড়ি গ্রামে নারী, পুরুষ ও শিশুসহ ৫২ জনকে হত্যা এবং পরিকল্পিতভাবে বুদ্ধিজীবী গণহত্যার দায়ে নিজামীর ফাঁসির রায় বহাল রেখেছে আপল বিভাগ। ৪ নম্বর অভিযোগে পাবনার করমজা গ্রামে নয়জনকে হত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাটের অভিযোগে ট্রাইব্যুনালে মৃত্যুদণ্ড হলেও আপিলে তিনি খালাস পেয়েছেন।
ট্রাইব্যুনালের রায়ে ১, ৩, ৭ ও ৮ নম্বর অভিযোগে আটক, নির্যাতন, হত্যা, মানবতাবিরোধী অপরাধের ষড়যন্ত্র ও সংঘঠনে সহযোগিতার চারটি অভিযোগে নিজামীকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছিল। সর্বোচ্চ আদালত প্রথম দুটিতে খালাস দিয়ে পরের দুটিতে সাজা বহাল রেখেছেন।
এর মধ্যে ১৯৭১ সালের ৩ নভেম্বর নিজামীর দেওয়া তথ্য অনুসারে বৃশালিখা গ্রামের সোহরাব আলীকে পাকিস্তানি সেনারা আটক করে হত্যা ও ৩০ আগস্ট ঢাকার নাখালপাড়ার পুরোনো এমপি হোস্টেলে গিয়ে আটক রুমী, বদি, জালাল, আলতাফ মাহমুদকে নিজামীর প্ররোচনায় পাকিস্তানি সেনা কর্তৃক হত্যার অভিযোগে নিজামীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড বহাল রেখেছেন আদালত।
অন্যদিকে ১৯৭১ সালের ৪ জুন পাবনা জেলা স্কুলের প্রধান শিক্ষক মাওলানা কছিমুদ্দিনকে অপহরণ করে নূরপুর পাওয়ার হাউসে পাকিস্তানি সেনাদের ক্যাম্পে নিয়ে হত্যা ও ১৯৭১ সালে মোহাম্মদপুরের শারীরিক শিক্ষা কলেজে পাকিস্তানি সেনা, রাজাকার ও আলবদর বাহিনীর ক্যাম্পে নিয়মিত যাতায়াত ও মানবতাবিরোধী অপরাধের ষড়যন্ত্রের অভিযোগে আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের দেওয়া যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের আদেশ থেকে খালাস দিয়েছেন আপিল বিভাগ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত