সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এবার ফেনীতে ষাটোর্ধ্ব নারীকে বিবস্ত্র করে নির্যাতন



21নিউজ ডেস্ক : ফেনীতে ষাটোর্ধ্ব এক বৃদ্ধাকে বিবস্ত্র করে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেছে স্থানীয় প্রভাবশালী এক ‘ডাকাত সর্দার’। নির্যাতনের চিত্রটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দিলে ফেনীতে তোলপাড় সৃষ্টি হয়। বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনের নজরে আসলে স্ত্রীসহ ডাকাত সর্দারকে আটক করে পুলিশ।

স্থানীয়রা জানায়, ফেনীর সোনাগাজী উপজেলার আদর্শ গ্রামে গত রোববার দুপুরে ওহিদা বেগম নামে এক যাটোর্ধ্ব নারীকে বিবস্ত্র করে গাছের সঙ্গে বেঁধে নির্যাতন করেছে ডাকাত সর্দার মোহাম্মদ সবুজ, তার স্ত্রী শাকেরা বেগম। তারা উভয়ই আদর্শগ্রামের আশ্রয়ন প্রকল্পের বাসিন্দা।

ঘরের সামনে লাকড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে সবুজ ও তার স্ত্রী বৃদ্ধা ওহিদা বেগমের ওপর এই নির্যাতন চালায়। নির্যাতনের বিষয়টি নির্যাতিতার ছেলে বেলাল হোসেন স্থানীয় আদর্শ গ্রাম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে লিখিতভাবে অভিযোগ করলে পুলিশ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি। দুইদিন পর মঙ্গলবার নির্যাতনের ছবি কে বা কারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেড়ে দেয়। বিষয়টি পুলিশ প্রশাসনের নজরে আসলে ডাকাত সর্দার মোহাম্মদ সবুজ তার স্ত্রী শাকেরা বেগমকে আটক করে সোনাগাজী থানা পুলিশ।

ডাকাত সর্দার সবুজ পার্শ্ববর্তী জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বাসিন্দা। তিনি সোনাগাজীর আশ্রয়ণ প্রকল্পে দীর্ঘদিন রাজনৈতিক প্রভাব খাটিয়ে বসবাস করছে। তার বিরুদ্ধে কোম্পানীগঞ্জ থানায় ৭টি ডাকাতির মামলা রয়েছে।

নির্যাতিত বৃদ্ধা ওহিদা বেগম জানান, সবুজ ও তার স্ত্রী সব সময় তার ওপর নির্যাতন চালায়। গত রোববার ঘরের সামনে লাকড়ি রাখলে তারা দুইজন ঝাড়ু দিয়ে পিটিয়ে গায়ের কাপড় খুলে গাছের সাথে তাকে বেঁধে রাখে। পরে পুলিশ সেখান থেকে তাকে উদ্ধার করে।

এ ব্যাপারে সোনাগাজী মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. হুমায়ুন কবীর জানান, আদর্শ গ্রাম পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে অভিযোগ দায়েরের ঘটনাটি তাকে সংশ্লিষ্ট পুলিশ কর্মকর্তা জানাননি। পরে জানার পর অভিযুক্ত সবুজ ও তার স্ত্রী শাকেরা বেগমকে আটক করা হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত