বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেটে লাইনে নারী ভোটার বেশি



13নিউজ ডেস্ক :: মেঘলা আকাশের ফাঁকে উঁকি দিচ্ছে রোদের আলোকছটা। এরই মাঝে সকাল থেকেই সিলেটের সীমান্তবর্তী দুই উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদে ভোটের মাঠে চলছে উৎসব-আমেজ।

জেলার কানাইঘাট ও জৈন্তাপুর উপজেলার বিভিন্ন কেন্দ্রে নারী ও পুরুষ ভোটাররা সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়েছেন ভোট দিতে। শান্তিপূর্ণ পরিবেশে চলছে ভোটগ্রহণ।

দুই উপজেলার ১৫টি ইউনিয়নে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত নির্বাচনী কোনো হট্টগোলের খবর পাওয়া যায়নি।

নির্বাচনী এলাকার বিভিন্ন কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, সবক’টি কেন্দ্রে চলছে শান্তিপূর্ণ ভোট উৎসব। তবে সব কেন্দ্রেই নারী ভোটারের উপস্থিতি ছিল লক্ষ্যণীয়। পুরুষরাও কাজকর্ম রেখে হাজির হচ্ছেন ভোট দিতে।

সীমান্তবর্তী এ দুই উপজেলায় ৬ স্তরের নিরাপত্তায় সবক’টি কেন্দ্রে ভোট উৎসব চলছে বলে জানিয়েছেন সিলেট জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুজ্ঞান চাকমা।

তিনি বলেন, ভোট গ্রহণের শুরু থেকে বেলা সাড়ে ১১টা পর্যন্ত কোথাও কোনো ধরনের বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায়নি। সব কেন্দ্রে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ চলছে।

জৈন্তাপুর উপজেলার উমনপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে ভোট দিতে আসা গৃহিনী তামান্না আক্তার হেনা বলেন, দীর্ঘক্ষণ লাইনে দাঁড়িয়ে পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়েছি।

ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং অফিসার সুনির্মল দত্ত বলেন, সকাল থেকে শান্তিপূর্ণ ও নিরবচ্ছিন্নভাবে ভোটগ্রহণ চলছে। এ কেন্দ্রে ১২৬৪ জন ভোটার রয়েছেন বলে জানান তিনি।

একই উপজেলার চিকনাগুল ইউনিয়নের কহাইগড় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রেও সকাল থেকে সুষ্টভাবে ভোটগ্রহণ চলছে জানিয়েছেন প্রিজাইডিং অফিসার আজহারুল ইসলাম।

ওই কেন্দ্রে মোট ২০৬০ জন ভোটার রয়েছেন। সকাল থেকে কেন্দ্রে নারী ভোটারের উপস্থিতি বেশি রয়েছে বলে জানান তিনি।

জৈন্তাপুরে যেসব ইউনিয়নে নির্বাচন ভোটগ্রহণ হচ্ছে সেগুলো হলো- ১নং নিজপাট, ২নং জৈন্তাপুর, ৩নং চারিকাটা, ৪নং দরবস্ত, ৫নং ফতেপুর, ৬নং চিকনাগুল।

কানাইঘাটে ১নং লক্ষ্মীপ্রসাদ পূর্ব, ২নং লক্ষ্মীপ্রসাদ পশ্চিম, ৩নং দিঘীরপাড় পূর্ব, ৪নং সাতবাঁক, ৫নং বড়চতুল, ৬নং কানাইঘাট সদর, ৭নং দক্ষিণ বানীগ্রাম, ৮নং ঝিঙ্গাবাড়ী, ৯নং রাজাগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদ।

এছাড়া সুনামগঞ্জ জেলার সুনামগঞ্জ সদর উপজেলার ৯টি, দোয়ারা বাজার উপজেলার ৯টি, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার ৮টি ইউনিয়নে শান্তিপূর্ণ ভোটগ্রহণ চলছে দাবি করেছেন স্থানীয় নির্বাচন সংশ্লিষ্টরা।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত