বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কোন ডালের কি উপকারিতা



full_143356361_1469689310লাইফ স্টাইল ডেস্ক:

উদ্ভিজ্জ আমিষের অন্যতম উত্‍স হলো ডাল। গমের দ্বিগুণ এবং মেশিনে ছাঁটা চালের প্রায় চার গুণ বেশি আমিষ ডালে থাকে। যেকোনো ধরনের এক ছটাক ডালে যে পরিমাণ আমিষ থাকে তা এক ছটাক মাংসের আমিষের সমান।

এক ছটাক ডিমের আমিষের দ্বিগুণ এবং এক ছটাক দুধের আমিষের প্রায় সাত গুণ! অনেকেই বদহজমের ভয়ে বেশি ডাল খেতে চান না। কিন্তু যদি ভালো ভাবে রান্না করা যায় তাহলে ডালের আমিষের একটা বিরাট অংশ (প্রায় ৯৯%) শরীরের কাজে লাগে। আসুন জেনে নিই সহজলভ্য কয়েক ধরনের ডালের পুষ্টিগুণ।

মুগ ডাল
মুগ ডাল সহজেই হজম হয়। প্রতি ১০০ গ্রাম মুগ ডালে রয়েছে-
খাদ্যশক্তি ৩৫৮ ক্যালোরি
আমিষ ২৪.৫ গ্রাম
চর্বি ১.২ গ্রাম
শর্করা ৫৯.৯ গ্রাম
ক্যালসিয়াম ৭৫ মিলিগ্রাম
ফসফরাস ৪০৫ মিলিগ্রাম
লোহা ৮.৫ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ‘বি-১’ ০.৪৬ মিলিগ্রাম

মসুর ডাল
মসুর ডালও সহজপাচ্য এবং এতেই আমিষের পরিমাণ রয়েছে সবচেয়ে বেশি। প্রতি ১০০ গ্রাম মসুর ডালে রয়েছে-
খাদ্যশক্তি ৩১৬ ক্যালোরি
আমিষ ২৫.১ গ্রাম
চর্বি ০.৭ গ্রাম
শর্করা ৫৯.৯ গ্রাম
ক্যালসিয়াম ৬৯ মিলিগ্রাম
ফসফরাস ২৪২ মিলিগ্রাম
লোহা ৪.৮ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ৪৫০ আইইউ
ভিটামিন ‘বি১’ ০.৪৫ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ‘বি২’ ০.৪৯ মিলিগ্রাম
নিয়াসিন ১.৫ মিলিগ্রাম

মাসকলাই ডাল
মাসকলাই ডাল খনিজের আধার। গ্রামাঞ্চলে এই ডাল খাওয়া হয় বেশি। প্রতি ১০০ গ্রাম মাসকলাই ডালে রয়েছে-
খাদ্যশক্তি ৩২৬ ক্যালোরি
আমিষ ২৪.০ গ্রাম
চর্বি ১.৪ গ্রাম
শর্করা ৫৯.৬ গ্রাম
ক্যালসিয়াম ১৫৪ মিলিগ্রাম
ফসফরাস ৩৮৫ মিলিগ্রাম
লোহা ৯.১ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ‘এ’ ৬৪ আইইউ
ভিটামিন ‘বি-১’ ০.৪২ মিলিগ্রাম
ভিটামিন ‘বি-২’ ০.৩৭ মিলিগ্রাম
নিয়াসিন ২.০ মিলিগ্রাম

ছোলার ডাল
ছোলার ডালের আমিষের উত্‍স হিসেবে জনপ্রিয় হলেও এতে তুলনামূলকভাবে চর্বির পরিমাণটা বেশি। তাই পুষ্টিগুণ বিচার করলে ছোলার ডাল ও এই জাতীয় খাবার বেশি না খাওয়াটাই ভালো। প্রতি ১০০ গ্রাম ছোলার ডালে রয়েছে-
খাদ্যশক্তি ৩৮৫ ক্যালোরি
আমিষ ২০.৮ গ্রাম
চর্বি ৫.৬ গ্রাম
শর্করা ৫৯.৮ গ্রাম
ক্যালসিয়াম ৫৬ মিলিগ্রাম
ফসফরাস ৩৩১ মিলিগ্রাম
লোহা ৯.১ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘এ’-২১৬ আইইউ
ভিটামিন ‘বি-১’ ০.৪৮ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘বি-২’ ০.১৮ মিলিগ্রাম
নিয়াসিন ২.৪ মিলিগ্রাম ভিটামিন ‘সি’ ১ মিলিগ্রাম

খেসারি ডাল
খেসারির ডাল অতিরিক্ত খেলে শরীরে ব্যথা-বেদনাসহ বিভিন্ন ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। তাই এই ডাল বেশি না খাওয়াই ভালো। প্রতি ১০০ গ্রাম খেসারি ডালে রয়েছে-
খাদ্যশক্তি ৩২৭ ক্যালোরি
আমিষ ২২.৯ গ্রাম
চর্বি ০.৭ গ্রাম
শর্করা ৫৫.৭ গ্রাম
ক্যালসিয়াম ৯০ মিলিগ্রাট
ফসফরাস ৩১৭ মিলিগ্রাম
লোহা ৬.৩ মিলিগ্রাম
উত্‍কৃষ্ট উদ্ভিজ্জ আমিষ হলেও কোনো এক প্রকারের ডালে সব অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে না। তাই প্রতিদিন একই রকম ডাল না খেয়ে একেক দিন একেক রকম ডাল অথবা একই দিন দুই-তিন রকম ডাল মিশিয়ে খাওয়া উচিত।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত