সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে পূর্বশক্রতায় ঘর পোড়ানোর অভিযোগ, আহত ৪



unnamed-2-68মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জে পূর্বশত্রুতার জের ধরে প্রতিপক্ষের বসতঘর জ্বালিয়ে দেয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। ঘর পোড়ানোর জের ধরে দুই পক্ষের সংঘর্ষে ৪জন আহত হয়। আহতরা কমলগঞ্জ ও মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার ২৫ সেপ্টেম্বর দিবাগত রাত সাড়ে তিনটায় ইসলামপুর ইউনিয়নের কাঠাঁলকান্দি গ্রামে।

বসত ঘরের মালিক আহত করিম মিয়া জানান, প্রতিবেশি মনফর মিয়ার সাথে দীর্ঘদিন ধরে জমিজমা নিয়ে মামলা মোকদ্দমা চলছে। এ সংক্রান্ত একটি মামলায় মনফর মিয়ার জেল কেটে জামিনে বের হয়ে এসে প্রায় তাকে নানা হুমর্কি ও ভয়ভীতি প্রদশর্ণ করতে থাকেন। ঘটনার দিন রবিবার ভোরে হঠাৎ তার বসত ঘরে আগুন দেখতে পেয়ে স্বপরিবারে ঘর হতে বের নিজেরকে রক্ষা করেন এবং আর্ত চিৎকারে প্রতিবেশিরা ছুটে আসে। খবর পেয়ে কমলগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস এর লোকজনরা ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনেন। কিন্তু বসত ঘরের আসবাবপত্রসহ প্রায় ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল পুড়ে যায়।
তিনি অভিযোগ করেন, মনফর মিয়ার নেতৃত্বে পরিকল্পিত ভাবে আমার ঘর পোড়ানো হয়েছে। এদিকে এ ঘটনার পর সকাল সাড়ে ৭টায় করিম মিয়ার জামাতা একই গ্রামের ইদির মিয়া স্থানীয় বাজারে আসলে মনফর মিয়ার আত্মীয় কাছিম আলীর সাথে অগ্নিকান্ডের বিষয়ে কথাকাটাকাটির এক পর্যায়ে হাতাহাতি ঘটনা ঘটে। এ সংবাদ পেয়ে উভয় পক্ষের লোকজনদের মধ্যে মারামারি সংঘঠিত হয়। সংঘর্ষে আহত হন করিম মিয়া(৫৬) আকরামমুল হোসেন(২৫) রাইফুল বিবি(৪২) ও কাছিম আলী(৩০)। আহতদের মধ্যে কমলগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে করিম মিয়া ও রাইফুল বিবি চিকিৎসাধীন থাকলেও গুরুত্ব আহত আকরামুল হোসেনকে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতলে প্রেরণ করা হয়েছে এবং কাছিম আলী প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছেন। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে বলে জানান করিম মিয়া।
ঘর পোড়ানোর বিষয়ে কাঠালকান্দি গ্রামের কালাম মিয়া, ইরাক মিয়া ও ময়না মিয়া জানান, উভয় পরিবারের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলছে। তবে ঘর কে পুড়িয়েছে তা দেখিনি। ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল হান্নান বলেন, মনফর মিয়া উগ্রপ্রকৃতির লোক। সে ঘটনা ঘটিয়ে থাকতে পারে।
কমলগঞ্জ উপজেলা ফায়ার সার্ভিস ষ্টেশনের দায়িত্ব প্রাপ্ত কর্মকর্তা জহিরুল ইসলাম বলেন, ভোরে খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌছে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনা হয়। তবে কেউ পুড়িয়েছে কি না সে বিষয়ে কোন মন্তব্য করেননি।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত