সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বড়লেখায় প্রতিবন্ধী যুবতীকে ধর্ষণ, সন্তান প্রসব



unnamed-copy-1বড়েলখা প্রতিনিধি : মৌলভীবাজারের বড়লেখায় নারী নির্যাতন মামলার পলাতক আসামী জালাল উদ্দিনকে (৪০) গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সে উপজেলার সুজানগর ইউপির রফিনগর গ্রামের মৃত আজির উদ্দিনের ছেলে। ১০ ডিসেম্বর শনিবার দুপুরে বড়লেখা থানার এসআই অমিতাভ দাস তালুকদারের নেতৃত্বে একদল পুলিশ সুজানগর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে।
থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, বড়লেখা উপজেলার সুজানগর ইউনিয়নের রফিনগর গ্রামের মৃত আজির উদ্দিনের ছেলে জালাল উদ্দিন গ্রামের প্রতিবন্দ্বী এক যুবতীকে ২০১৪ সালের ১৮ ফেব্র“য়ারী ঘরে ঢুকে জোরপুর্বক ধর্ষণ করে। ঐ বছরের ২৮ নভেম্বর রাতে ধর্ষিতা এক পুত্র সন্তান প্রসব করেন। বিচার সালিশে একাধিকবার ধর্ষক জালাল উদ্দিন (৩৬) নির্যাতিতাকে বিয়ে করতে সম্মতি দিয়েও স্ত্রীর মর্যাদা ও সন্তানের স্বীকৃতি না দেয়ায় ধর্ষিতার বড়বোন সুফিয়া বেগম জালাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ সংশোধিত-২০০৩ এর ৯ (১) ধারায় মামলা করেন। মামলা নং-জি/আর-০৮/১৫ (বড়), নারী ও শিশু ২৩১/১৫। এ মামলার তদন্তকারী পুলিশ কর্মকর্তা জালালের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। অভিযোগপত্র দাখিলের পর আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারী পরোয়ানা জারী করেন। এর পর থেকেই ধর্ষক জালাল পলাতক ছিল।
বড়লেখা থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) আকবর হোসেন ধর্ষণ মামলার আসামী গ্রেপ্তারের সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, প্রতিবন্দ্বী যুবতীকে ধর্ষণ ও ছেলে সন্তান প্রসবের অভিযোগে জালাল উদ্দিনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা হয়েছিল। অভিযোগপত্র দাখিলর পর আদালত তার বিরুদ্ধে গ্রেফতারী পরোয়ানা জারি করেন। ১১ ডিসেম্বর রোববার আদালতের মাধ্যমে তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত