বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

মোবাইল চুরির অভিযোগে কমলগঞ্জে কিশোরকে হত্যা চেষ্টা



s-2কমলগঞ্জ সংবাদদাতা:মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলার পতনউষার ইউনিয়নের শহীদনগর বাজারে রানা মিয়া(১৫) নামে এক কিশোরের বিরুদ্ধে মোবাইল চুরির অভিযোগ এনে রাতে বাজার হতে ডেকে নিয়ে হত্যা করার চেষ্টার অভিযোগ উঠেছে। ২২ ডিসেম্বর বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০ টায় শহীদনগর বাজার সংলগ্ন এলাকায় এ ঘটনাটি ঘটেছে।
কিশোররের বড় ভাই শাহনেওয়াজ অভিযোগ করে বলেন, পতনউষারের সাদ আলী (২৩), ছব্দর মিয়া (২২) ও ফয়ছল আহমেদ (১৮) নামে তিন যুবক মোবাইল চুরির অভিযোগ তোলে আমার নিরীহ ছোট ভাই দিনমজুর রানা(১৫)কে বাজার হতে ধরে নিয়ে শহীদনগর বাজার সংলগ্ন বিলের এক কোনে নিয়ে যায়। সেখানে রানাকে নিয়ে বেঁধে ও বুকের উপর উঠে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যার চেষ্টা করে। এ সময়ে আর্তচিৎকারে পার্শ্ববর্তী স্থান দিয়ে পথচারীরা এগিয়ে আসলে তিন যুবক পালিয়ে যায়। পরে রানাকে উদ্ধার করে মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে নিয়ে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে রাতেই শমশেরনগর ফাঁড়ির পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন। তিনি আরও বলেন, আহত রানা মিয়ার চিকিৎসায় তারা ব্যস্ত থাকায় থানায় কোন অভিযোগ দেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে স্থানীয় একটি মহল বিষয়টি সালিশ বৈঠকে সমাধানের জন্য জোর চেষ্টা চালাচ্ছে। এ জন্য তারা অভিযুক্তদের কাছ থেকে জামানত হিসাবে নগদ ১৫ হাজার টাকাও গ্রহন করেছেন।
পতনউষার ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে সদস্য নারায়ন মল্লিক বলেন, রানাকে মোবাইল চুরির অভিযোগে ধরে নেওয়া হয়েছিল। বৃহস্পতিবার রাতে যে বাড়ি থেকে মোবাইল চুরি হয়েছিল সে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জেনেছি। তবে তাকে হত্যার চেষ্টা করা হয়েছে কি না তা এখনও পরিস্কার নয়। বিষয়টি সামাজিকভাবে সমাধানে সালিশ বৈঠকের চেষ্টা চলছে এজন্য জামানত হিসাবে অভিযুক্তদের কাছ থেকে ১৫ হাজার টাকা গ্রহন করা হয়েছে।
শমশেরনগর পুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক সৈয়দ নাসির উদ্দীন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সালিশ বৈঠকের নামে অভিযুক্তদের কাছ থেকে নগদ ১৫ হাজার টাকা জামানত নেওয়া হয়েছে বলে তিনি প্রাথমিক তদন্তে জেনেছেন। এ ধরনের গুরুতর বিষয়ে কিভাবে সালিশ বৈঠক হবে তা বোধগম্য নয়। তবে এ ঘটনায় আক্রান্ত কিশোরের পরিবার থেকে এখনও কোন অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত