বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

এবার পর্ণোগ্রাফির অভিযোগে গ্রেফতার হলেন প্রিন্টিং ব্যবসায়ী জামান



press-photo-30-12-2016-1-hq-1-600x520নিউজ ডেস্ক:: ভিসা জালিয়াতির পর এবার পর্ণোগ্রাফির অভিযোগে গ্রেফতার হলেন সিলেটের প্রিন্টিং ব্যবসায়ী এম কে জামান। গত বৃহস্পতিবার নগরীর তিনটি স্থানে অভিযান চালিয়ে জামানকে আটক করা হয়। এসময় তার কাছ থেকে জাল পাসপোর্ট ও ভিসা তৈরির সরঞ্জাম, পর্ণো ছবি ও ভিডিও, একটি ল্যাপটপসহ বিভিন্ন সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়।
র‌্যাব-৯ এর এএসপি ও সহকারি পরিচালক (মিডিয়া) সুজন চন্দ্র সরকার জানান, অনুসন্ধানে জামানের বিরুদ্ধে নানা অভিযোগের সত্যতা পেয়েছে র‌্যাব। ২০১১ সালে এসএমপির কোতয়ালী থানায় তার ও তার জালিয়াতি চক্রের বিরুদ্ধে মোট ৩ টি মামলা হয়। যার বাদী যথাক্রমে মার্কিন দূতাবাস, ব্রিটিশ হাইকমিশন ও পুলিশ। তাছাড়া নগরীর টিলাগড়ের শাপলাবাগে তার ২টি বাসার মধ্যে একটি ছয় তলা বাড়ীর তৃতীয় তলা থেকে ষষ্ঠ তলা পর্যন্ত ছাত্রী মেস রয়েছে। সে মেসের ছাত্রীদের বাথরুমে গোপন ক্যামেরা স্থাপনের মাধ্যমে বিভিন্ন ভাবে ব্লাকমেইল করে তার সাথে যৌনকর্মে লিপ্ত হতে বাধ্য করত। এছাড়া শিশুদের প্রলোভন, ভয়ভীতি প্রদর্শন ও হুমকি প্রদান করে শারীরিক নির্যাতন করে পর্নোগ্রাফি তৈরি করত।
র‌্যাবের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, বিকৃত রুচির জামান নানাভাবে শিশুদের টার্গেট করে যৌন নির্যাতন করত। শিশু নির্বাচনের ক্ষেত্রে সে পারিবারিক বন্ধু বা আতœীয়স্বজনের মেয়ে, প্রতিবেশিদের মেয়ে, বাগদত্তা বা স্ত্রীর বোন, অপরিচিতজনদেরকে প্ররোচনা ও ব্ল্যাকমেইল করে নগ্ন করে ছবি তুলত ও ভিডিও করত এবং এসব ছবি ও ভিডিওগুলো সংরক্ষণ করে রেখে পরবর্তীতে সুযোগ নেওয়ার চেষ্টা করত ও বিভিন্ন বন্ধুদেরকে শেয়ার করত । অপ্রাপ্ত বয়সী মেয়েদের সে চকলেট, বিস্কুটের লোভ দেখাত, তাতে কাজ না হলে ধমক ও হুমকি দিয়ে ছবি তুলতে বাধ্য করত। পরবর্তীতে এসব দিয়ে তাদের ব্লাকমেইল করত। র‌্যাবের তদন্তে ন্যূনতম ০৬-০৭ জন শিশুর প্রতি অত্যাচারের কথা বেরিয়ে এসেছে। প্রতিক্ষেত্রেই দেখা গেছে পারিবারিক, বন্ধু অথবা প্রতিবেশীদের শিশু সন্তানদের সাথে সে এই ধরনের অনৈতিক আচরণ করেছে। তাকে এসএমপি’র শাহপরান থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত