বৃহস্পতিবার, ১৫ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ১ অগ্রাহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

আজিজ হত্যা: কিশোর গ্রুপের সন্ধান



নিউজ ডেস্ক:: রাজধানীর তেজকুনিপাড়ায় দুই কিশোর গ্রুপের বিরোধের জের ধরে বুধবার ১৮ বছর বয়সের আবদুল আজিজকে হত্যা করা হয়। আজ বৃহস্পতিবার গ্রেপ্তার তিন কিশোরের স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি থেকে এই তথ্য জানা যায়। জবানবন্দি শেষে তাদের আদালতে পাঠানো হয়।
তেজগাঁও থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মাজহারুল ইসলাম বৃহস্পতিবার জানান, গ্রেপ্তার তিন কিশোরই আজিজ হত্যার দায় স্বীকার করেছে। স্বীকারোক্তি শেষে তাদের আদালতে পাঠানো হয়। এ ছাড়া মফিজুলকে গ্রেপ্তারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।
তিনি আরো জানান, তিন কিশোরের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী, দুই কিশোর মফিজুল ও মনির গ্রুপের দ্বন্দ্বের জের ধরে আজিজকে খুন করা হয়।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে পুলিশের এই কর্মকর্তা বলেন, ‘এ এলাকায় কিশোর গ্রুপ থাকার কোনো তথ্য নেই। তবে অল্প বয়সে এরা যে এতো ভয়ঙ্কর অপরাধ করবে তা জানা ছিল না। তবে এখন খোঁজ-খবর নেওয়া হচ্ছে, আরো কিশোর গ্রুপ আছে কিনা।’
সরেজমিন খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, তেজকুনিপাড়া রেলওয়ে কলোনিতে একাধিক কিশোর গ্রুপ রয়েছে। এরা হকার বা বিভিন্ন শ্রমিকের কাজ করে থাকে। এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের জন্য তারা কলোনি ও আশপাশে আড্ডা দেয়। বিশেষ করে সন্ধ্যার পর তাদের আনাগোনা চোখে পড়ে বেশি। উল্লেখিত দুটি গ্রুপ ছাড়াও করিম, বেচা মনির, গ্রিল আজাদ গ্রুপ ছাড়াও কয়েকটি গ্রুপ রয়েছে। এরা মাদক সেবন ও মেয়েদের উত্যক্ত করে থাকে। তবে ভয়ে কেউ মুখ খুলতে সাহস পায় না।
কলোনির এক বাসিন্দা জানান, মফিজুল ও মনির গ্রুপের মধ্যে ছোট ভাই-বড় ভাই নিয়ে বিরোধ চলছিল বহুদিন ধরে। প্রায় আড়াই মাস আগে খেলাঘর মাঠের সামনে এই দুই গ্রুপের মধ্যে মারামারিও হয়।
তেজগাঁও রেলওয়ে কলোনিতে আজিজের বাসায় গিয়ে দেখা যায় শোকাহত বাবা বাছির মিয়া ও মা শরিফা বেগমকে সান্তনা দিচ্ছেন কয়েকজন। বাবা বাছির মিয়া ছেলে হত্যার সুষ্ঠু বিচার দাবি করেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত