শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

শ্রীমঙ্গলের জেরিনকে প্রধানমন্ত্রীর পুরস্কার



জীবন পাল:: চায়ের রাজধানী পর্যটন নগরী শ্রীমঙ্গলের মেয়ে জেরিনের হাতে পুরস্কার তোলে দিলেন গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

রোববার (২২ জানুয়ারি) বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছ থেকে পুরস্কার গ্রহণ করে জেরিন। ৪৬তম জাতীয় স্কুল ও মাদরাসা শীতকালীন ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় জেরিন একক এবং দ্বৈত রানার্স আপ হয়। দ্বৈত প্রতিযোগিতায় তার সহযোগী কৃতী বর্ধন। সেও শ্রীমঙ্গলই মেয়ে এবং একই স্কুলের শিক্ষার্থী।
প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজ হাতে শ্রীমঙ্গলের মেয়ে জেরিনের হাতে পুরস্কার তোলে দেওয়ার সময় পাশেই ছিলেন সিলেটের গর্ব গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি ।
জেরিন প্রথমে শ্রীমঙ্গল উপজেলায় চ্যাম্পিয়ন এবং পরবর্তীতে মৌলভীবাজার জেলা চ্যাম্পিয়ন হয়। তারপর সিলেট বিভাগেও চ্যাম্পিয়ন বকুল অঞ্চল চট্টগ্রাম এবং কুমিল্লা চ্যাম্পিয়ন, জাতীয়ভাবে চাপাঁ অঞ্চল ও গোলাপ অঞ্চলকে হারিয়ে ফাইনালে পদ্মা অঞ্চলের উর্মির কাছে পরাজিত হয়ে রানার্স আপ হয়।
পুরো নাম রাহিমা আহম্মেদ জেরিন। শ্রীমঙ্গল শহরের মিশন রোডস্থ বঙ্গবীর রোডের ছোট একটি বাড়িতে জন্ম জেরিনের। ১৪ বছরের এই বেড়ে ওঠাটা এখানেই। শ্রীমঙ্গল শহরের হোটেল নিলীমা’র ম্যানেজার মরহুম মাসুম আহমেদ কন্যা জেরিন। ৩ ভাই বোনের মধ্যে জেরিন তৃতীয়।
শ্রীমঙ্গল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী রাহিমা আহম্মেদ জেরিন। বড় ভাই ইখতিয়ার আহমেদ রিফাত শ্রীমঙ্গল দি বাড্স রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল এন্ড কলেজে একাদ্বশ শ্রেনীতে এবং বোন ইরিন শ্রীমঙ্গল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের এসএসসি পরীক্ষার্থী হিসেবে অধ্যয়নরত।
জাতীয় পর্যায়ে সাফল্য এবং প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরস্কার গ্রহণ প্রসঙ্গে অনুভূতি জানতে চাইলে জেরিন বলেন, আমার এই অর্জনের পেছনে আমার চাচা মহসিন আহম্মদ ও আমার স্কুলের ক্রীড়া শিক্ষক মিজানুর রহমান স্যারের ভূমিকায় অনেক। তাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও সহযোগিতায় আমার এই অর্জন সম্ভব হয়েছে। এই আনন্দের মাঝে দু:খ একটাই,আজ যদি আমার বাবা বেঁচে থাকতেন তাহলে হয়তো আমার থেকে আমার বাবার খুশিটা বেশি থাকতো।
জেরিন বলেন, আমার পরিবার,সহপাঠি,শিক্ষকসহ শ্রীমঙ্গলবাসীর কাছে আমার একটাই চাওয়া, তা হচ্ছে সকলের সহযোগিতা। যে সহযোগিতায় হয়তো আমাকে আরো অনেক দূর নিয়ে যেতে সক্ষম হতে পারে। সেই সাথে সকলের দোয়া কামনা করছি।
জেরিনে এই অর্জনে শ্রীমঙ্গল উপজেলা শিক্ষা অফিসার দিলীপ কুমার বর্ধন বলেন, পড়ালেখার পাশাপাশি একজন শিক্ষার্থীর খেলাধুলার প্রয়োজনীয়তা অপরিসীম। যার বাস্তব উদাহরণ জেরিন। সে পড়ালেখার পাশাপাশি খেলাধুলা চালিয়ে যাওয়ায় আজকে এই অর্জনে সক্ষম হয়েছে। যা শুধু তার একার নয়, পুরো শ্রীমঙ্গলবাসীর অর্জন।
জেরিন তার এই অর্জনে শ্রীমঙ্গলকে সারা বাংলায় তোলে ধরতে যে ভূমিকা রেখেছে তা উদাহরণ সরূপ।
জেরিন সম্পর্কে জানতে চাইলে তার ব্যাডমিন্টন প্রশিক্ষক মো: মহসিন আহমদ বলেন, জেরিন উপজেলা, জেলা ও বিভাগীয় পর্যায়ে ধাপে ধাপে চ্যাম্পিয়ান হয়ে জাতীয় পর্যায়ে রানার আপ হয়। তাকে জাতীয় টিমে খেলার জন্য বিভিন্নভাবে প্রশিক্ষণ দেওয়া হচ্ছে।
আগামীতে ইনডোর ব্যাডমিন্টন মাঠে প্রশিক্ষণ দিয়ে জেরিনকে আরও অভিজ্ঞ করে গড়ে তোলার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তিনি।
তিনি বলেন, জেরিন জাতীয় ভাবে আন্ডার সিক্সটিনে খেলে। সে শ্রীমঙ্গল প্রেসক্লাবের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মো: মামুন আহমদ এর ভাতিজি।
জেরিনের এ সাফল্যে শ্রীমঙ্গল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ক্রীড়া পরিচালনা শিক্ষক মিজানুর রহমান বলেন, জেরিন উপজেলা থেকে জেলায় রাজনগর ও কুলাউড়া উপজেলাকে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ান হয়ে বিভাগীয় পর্যায়ে বিজয়ী হয়। শাপলা,বকুল, গোলাপ ও চাপা গ্রুপগুলোর সাথে খেলে জাতীয় পর্যায়ে রানার আপ হয়। আরও ভালভাবে প্রশিক্ষণ নিলে ভবিষ্যতে আরও ভাল খেলে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে চ্যাম্পিয়ান হবার সম্ভাবনা রয়েছে জেরিনের।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত