সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

সিলেটে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের ১১ নেতাকর্মী জেলহাজতে



নিউজ ডেস্ক ::
নগরীতে আসামি ছিনতাইয়ের চেষ্টার অভিযোগে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাসহ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। গ্রেপ্তারকৃতরা হচ্ছেন, ইমন দাস, মনিরুল ইসলাম, কামরুল ইসলাম, সুজেল আহমদ তালুকদার, সজীব আহমদ তালুকদার, সৌরভ তালুকদার, সাহেদ আহমদ, জুবায়ের খান, মাসুদ আহমদ, সামসুজ্জামান ও সুমন পাল।
গতকাল রোববার দিবাগত রাত সাড়ে ৩ টার দিকে নগরীর কুমারপাড়া (ঝর্নারপার গলির) মুখ থেকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এ সময় ৫টি মোটরসাইকেল জব্দ করে পুলিশ।
এ ব্যাপারে সিলেট কোতোয়ালি থানার পুলিশ পরিদর্শক (এসআই) হাবিবুর রহমান বাদি হয়ে গ্রেপ্তারকৃত ১১ জনের নামোল্লেখ করে অজ্ঞাত আরো ৩-৪ জনকে আসামি করে ‘পুলিশ অ্যাসল্ট’ মামলা দায়ের করেছে। গতকাল রোববার বিকেলে পুলিশ গ্রেপ্তারকৃতদের আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে।
পুলিশ সূত্র জানায়, গত শনিবার রাত সাড়ে ৩ টার দিকে ৪৩ বোতল ফেনসিডিল ও প্রাইভেট কারসহ সংগীতশিল্পী ইমন দাস (২৫) ও মনিরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সিলেট যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা খবর পেয়ে আসামিদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করেন। এসময় পুলিশের সাথে যুবলীগ-ছাত্রলীগ নেতাকর্মীদের সাথে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে। কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলার অভিযোগ ১১ জনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সোহেল আহমদ জানান, গত শনিবার দিবাগত রাতে মাদক ও প্রাইভেট কারসহ দুজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এসময় যুবলীগ ও ছাত্রলীগ পরিচয়ে কয়েকজন যুবক আসামিদের ছিনিয়ে নেওয়ার চেষ্টা চালান। তখন পুলিশ বাধা দিলে তাঁরা কর্তব্যরত পুলিশ সদস্যদের ওপর হামলা করেন। এ ঘটনায় ঘটনাস্থল থেকে ১১জনকে গ্রেপ্তার করা হয়। তাদের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি থানায় একটি পুলিশ অ্যাসল্ট মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে সোহেল আহমদ উল্লেখ্ করেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত