সোমবার, ১৪ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৯ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

ঢাকা ও সিলেটে আন্তর্জাতিক সিলেট উৎসব ৩ ও ৬ মার্চ



নিউজ ডেস্ক ::শুরু হচ্ছে ঢাকা ও সিলেটে ‘আন্তর্জাতিক সিলেট উৎসব ২০১৭’। জালালাবাদ অ্যাসোসিয়েশন ঢাকার উদ্যোগে আজ শুক্রবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দু দিনব্যাপী এই উৎসব উদ্বোধন করবেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। চলবে আগামীকাল শনিবার পর্যন্ত।
আগামী ৬ মার্চ সোমবার সিলেটের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে দু দিনব্যাপী উৎসব উদ্বোধন করবেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ। চলবে আগামী মঙ্গলবার পর্যন্ত।
ঢাকায় দু দিনব্যাপী এই উৎসবের উদ্বোধনী আয়োজনে থাকছে, আলোচনাসভা, ডকুমেন্টরি প্রদর্শনী, কৌতুক, আবৃত্তি। নবরতেœর গান- সৈয়দ শাহনূর, রাধারমণ দত্ত, আরকুম শাহ্, হাছন রাজা, শীতালং শাহ, দুরবিন শাহ, শেখ ভানু, দীনহীন ও শাহ আবদুল করিমের গান। এছাড়া আরও থাকছে ঐতিহ্যবাহী ধামাইল, মণিপুরি, ঝুমুরসহ অন্যান্য নৃত্য পরিবেশনা।
ঢাকায় সমাপনী দিনে কাল শনিবার থাকছে, সিলেট অঞ্চলের গান, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী, কৌতুক, আবৃত্তি, দেশ-বিদেশেদের শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এছাড়া নৃত্যশৈলী সিলেট প্রযোজনায় গীতিকাব্য নাটক ‘হাছনজানের রাজা’র উদ্বোধনী প্রদর্শনী। শাকুর মজিদের রচনায় মঞ্চ নাটক পরিচালনা করবেন নীলাঞ্জনা জুঁই।
ঢাকার উৎসবে গুণিজন সংবর্ধনা ও জালালাবাদ স্বর্ণপদক প্রদান করা হবে। সংবর্ধনাপ্রাপ্ত গুণিজন- এম বি চৌধুরী, শিক্ষাবিদ (শিক্ষা), ব্রিগেডিয়ার ডা. এম এ মালিক, চেয়ারপার্সন-ন্যাশনাল হার্ট ফাউন্ডেশন (চিকিৎসা), আবুল মাল আবদুল মুহিত (অর্থনীতি), স্যার ফজলে হাসান আবেদ, চেয়ারপার্সন-ব্র্যাক(সামাজিক উন্নয়ন), সি আর দত্ত বীরউত্তম-সেক্টর কমান্ডার (মুক্তিযুদ্ধ), হাফিজ আহমদ মজুমদার, চেয়ারম্যান-বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি (মানবসম্পদ উন্নয়ন), নাসির এ চৌধুরী, প্রধান উপদেষ্টা-গ্রীন ডেল্টা ইনস্যুরেন্স কোম্পানি লি. (ব্যবসায়), দ্বিজেন শর্মা, নিসর্বিদ (পরিবেশ ও নিসর্গ)।
সিলেটের ৬ ও ৭ মার্চ দু দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধনী আয়োজনে থাকছে, আলোচনাসভা, ডকুমেন্টরি প্রদর্শনী, কৌতুক, আবৃত্তি। দেশ-বিদেশের সিলেটি শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। গীতি নৃত্যনাট্য অনুষ্ঠান।
সিলেটে গুণিজন সংবর্ধনা ও জালালাবাদ স্বর্ণপদক প্রদান করা হবে। সংবর্ধনাপ্রাপ্ত গুণিজন: অধ্যাপক মো. আব্দুল আজিজ (শিক্ষা), সাবেক উপাচার্য-মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটি, সিলেট, নুরুল ইসলাম নাহিদ (শিক্ষা বিস্তার), রণজিৎ বিশ্বাস (ক্রীড়া), স্ক্রীড়াবিদ, ডা. এম এ রকিব (চিকিৎসা), সুজেয় শ্যাম (সংগীত), স্বাধীন বাংলা বেতারখ্যাত গীতিকার ও সুরকার, শীলা রায় (নারি জাগরণ), নারী নেত্রী, অ্যাডভোকেট মনির উদ্দিন আহমদ (আইন পেশা), সালেহ চৌধুরী (সাংবাদিকতা ও মুক্তিযুদ্ধ), সাংবাদিক ও মুক্তিযোদ্ধা।
উৎসবের সমাপনী দিনে মঙ্গলবার (৭ মার্চ) থাকছে, সিলেট অঞ্চলের গান, প্রামাণ্যচিত্র প্রদর্শনী, কৌতুক, আবৃত্তি, দেশ-বিদেশেদের শিল্পীদের সাংস্কৃতিক পরিবেশনা। এছাড়া নৃত্যশৈলী সিলেট প্রযোজনায় গীতিনাট্য নাটক ‘হাছনজানের রাজা’র প্রদর্শনী।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত