মঙ্গলবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলম্যান পদে বাংলাদেশী-আমেরিকান হেলাল আবু শেখ’র প্রার্থীতা ঘোষণা



সাখাওয়াত হোসেন সেলিম ,নিউইয়র্ক:: ইউর ভয়েস ফর চেঞ্জ স্লোগানকে সামনে নিয়ে বিশ্বের রাজধানী খ্যাত নিউইয়র্ক সিটির কাউন্সিলম্যান পদে আবারও প্রার্থী হয়েছেন মূলধারার রাজনীতিক বাংলাদেশী-আমেরিকান হেলাল আবু শেখ। কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ৩২ (বেলী হারবার, ব্রিজি পয়েন্ট, বোর্ড চ্যানেল, হেমিলটন বীচ, হাওয়ার্ড বীচ, লিন্ডেন উড, নেপনসিট, ওজন পার্ক, রকওয়ে বীচ, রকওয়ে পার্ক, সাউথ ওজনপার্ক, সাউথ রিচমন্ড হিল এবং উড হ্যাভেন) থেকে তিনি এবার প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। ডেমোক্র্যাটিক দলীয় প্রাইমারী নির্বাচন আগামী ১২ সেপ্টেম্বর হওয়ার কথা রয়েছে।
নিউইয়র্ক সিটির ওজন পার্কের মসজিদ আল আমানে স্থানীয় সময় গত ৩ মার্চ শুক্রবার জুমার পূর্বক্ষণে প্রায় তিন হাজার মুসল্লীর উপস্থিতিতে কাউন্সিলম্যান পদে সিটির পাবলিক স্কুলের সাবেক শিক্ষক হেলাল আবু শেখ’র প্রার্থীতা ঘোষণা করা হয়। এর মাধ্যমে হেলাল আবু শেখ কাউন্সিলম্যান পদে তার নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু করলেন।
ব্যতিক্রমী এ নির্বাচনী ঘোষণার সময় কুইন্স ডিস্ট্রিক্ট ৩২ এর কাউন্সিলম্যান পদপ্রার্থী হেলাল আবু শেখ ছাড়াও অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, নিউইয়র্কের ব্রঙ্কস থেকে নির্বাচিত সাবেক স্টেট এসেম্বলীম্যান এরিক এ স্টেভেনসন এবং মসজিদ আল আমানের প্রেসিডেন্ট কবির চৌধুরী।
বক্তারা আসন্ন নির্বাচনে কাউন্সিল মেম্বার প্রার্থী হেলাল আবু শেখকে নিউইয়র্ক সিটির প্রথম বাংলাদেশী-আমেরিকান কাউন্সিলম্যান হিসেবে নির্বাচিত করে বাংলাদেশী কমিউনিটির অধিকার আদায়ে জোরালো ভূমিকা রাখার আহ্বান জানান।
তারা বলেন, হেলাল আবু শেখ ২০১৩ সালে কাউন্সিলম্যান পদে নির্বাচন করে দক্ষিণ এশিয়ানদের মাঝে যে আস্থা অর্জন করতে সক্ষম হয়েছেন, তারই ধারাবাহিকতায় সিটির কাউন্সিল ডিস্ট্রিক্ট ৩২’র কাউন্সিলম্যান পদে তিনি প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। বক্তারা বলেন, আসুন আমরা সকলে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে এ গুরুত্বপূর্ণ নির্বাচনে হেলাল শেখের পাশে দাঁড়াই। তাকে সর্বাত্মক সহযোগিতা করি। আসন্ন নির্বাচনে তার বিজয় সুনিশ্চিত করি।
এসময় হেলাল আবু শেখ বাংলাদেশী কমিউনিটির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে বলেন, আমি নির্বাচিত হলে নিউইয়র্ক সিটি কাউন্সিলে বাংলাদেশী-আমেরিকানদের কন্ঠস্বর হিসেবে ভূমিকা রাখব। নির্বাচনে তিনি বাংলাদেশী কমিউনিটির সার্বিক সহযোগিতা কামনা করে বলেন, প্রায় দু’দশকের বেশি সময় ধরে আমি এই কমিউনিটির জন্য কাজ করছি। আমি আপনাদের সুখ দুঃখের সাথী হতে চাই। আমি সকলের প্রয়োজন বুঝি। সে আলোকে গড়ে তুলতে চাই একটি অনিন্দ সুন্দর কমিউনিটি।
উল্লেখ্য, ২০১৩ সালে ডিস্ট্রিক্ট ৩৭ ব্রুকলীন থেকে কাউন্সিলম্যান পদে প্রার্থী হয়েছিলেন হেলাল আবু শেখ। সে নির্বাচনে তিনি অবশ্য জিততে পারেননি।
বিশিষ্ট সমাজ সেবক মরহুম মুক্তিযোদ্ধা এডভোকেট তজম্মুল আলীর চতুর্থ সন্তান হেলাল আবু শেখ ১৭ বছর বয়সে যুক্তরাষ্ট্রে আসেন। আসার পর থেকেই নিউইয়র্কে বসবাস করছেন। তিনি নিউইয়র্ক সিটি কলেজ অব টেনোলজি থেকে কম্পিউটার ইনফরমেশন বিষয়ে ব্যাচেলর করেন। এ কলেজে অধ্যয়নকালে তিনি দক্ষিণ এশিয়ানদের মধ্যে সর্ব প্রথম স্টুডেন্ট গভর্ণমেন্ট এসোসিয়েশনের ভিপি নির্বাচিত হন বিপুল ভোটে। পরে ব্রুকলীন কলেজ থেকে গণিতে মাস্টার্স ডিগ্রি অর্জন করেন। এর পর নিউইয়র্ক সিটি বোর্ড অব এডুকেশনের অধীনে পাবলিক স্কুল শিক্ষক হিসেবে কর্ম জীবন শুরু করেন। ২০১৩ সালে সিটি কাউন্সিলম্যান পদে নির্বাচনের প্রাক্কালে শিক্ষকতার পদ থেকে অবসর নেন। সে থেকে পূর্ণকালীন রাজনীতিক-সামাজিক কর্মকান্ডে জড়িয়ে পড়েন তিনি।
মাধ্যমিক স্কুল শিক্ষক হেলাল আবু শেখের সহধর্মিনী ডা. তানিয়া মুকিত শেখ ব্রঙ্কসের মন্টিফিয়ার হসপিটালের এটেন্ডিং ফিজিশিয়ান। তাদের রয়েছে তিন সন্তান মাইশা (১৩), মালিহা (১০) এবং মেহরান (১)।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত