রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নবীগঞ্জে মসজিদ ও গ্রামবাসীর চলাচলের একটি ব্রীজ নিয়ে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংখা ॥ প্রশাসনের আশু হস্তক্ষেপ কামনা এলাকাবাসীর



বুলবুল আহমদ, নবীগঞ্জ প্রতিনিধি ::নবীগঞ্জ উপজেলার দীঘলবাক ইউনিয়নের ক্ষুদ করিমপুর গ্রামের জামে মসজিদ ও গ্রামবাসীর একটি ডিও লেটারের মাধ্যমে বরাদ্ধকৃত শেরখাই খালের উপর নির্মিতব্য একটি সেতু বে-আইনীভাবে স্থানীয় এক প্রভাবশালী নিয়ে যাচ্ছে তার নিজস্ব বাড়ির সামনে! এ নিয়ে গ্রামবাসী প্রতিবাদ ও বাধাঁ প্রদান করলে প্রভাবশালী ও স্থানীয় গ্রামবাসীর মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করে। প্রশাসনের হস্তক্ষেপ কামনা করছেন এলাকাবাসী।

জানাযায়, ক্ষুদ করিমপুর গ্রামবাসী তাদের মসজিদ ও গ্রামাবাসীর স্বার্থে হবিগঞ্জ- ১ আসনের সংসদ সংসদ্য এম এ মুনিম চৌধুরী বাবুর কাছে একটি আবেদন করেন। এরই প্রেক্ষিতে গত ২৭ আগষ্ঠ ২০১৬ইংরেজীতে ডিও লেটার প্রদান করেন সে অনুযায়ী মহা পরিচালক ও প্রকল্প ২০১৬-২০১৭ অর্থ বৎসরে গ্রামের রাস্তায় ১৫ মিটারের কমবেশী সেতু/কালভার্ট নির্মার্ণের নকশা সহ প্রাক্কলন অনুমোদন ক্রমে একটি ম্বারক নং ৫১.০১.০০০০.০২৪.৪১.০১১.১৬/১৭১৬ তারিখ ০১.০৬.১৬ইংরেজীতে প্রেরন করেন। ঐ সেতুর নকশা অনুযায়ী ক্ষুদ করিমপুর গ্রামের জামে মসজিদের নিকটবর্তী সেতু নির্মান করে ঠিকাদার ইদানিং সর্বসাধারণের স্বার্থের পরিপস্থি জনৈক হাজী আব্দুল জলিল এর বাড়ির সামনে সম্পর্ণ ব্যক্তি স্বার্থে ঐ সেতুর নির্মানের কাজ গত কয়েকদিন ধরে চলছে। এতে উক্ত গ্রামবাসীর কোন উপকার না আসাতে গ্রামবাসী যথাস্থানে সেতু নির্মানের জন্য ঠিকাদারকে বলা মাত্রই ঐ প্রভাবশালী লন্ডন প্রবাসীর লোকজনের সাথে এলাকাবাসীর বাকবিতন্ড শুরু হয়। এতে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করে। এ নিয়ে ঐ এলাকায় টানটান উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় বড় ধরনের সংঘর্ষ হতে পারে বলে এলাকাবাসী ধারনা করছেন। তাই প্রশাসনের উর্ধাতন কর্তৃপক্ষের আশু হস্তক্ষেপ কামনা করছেন ঐ এলাকাবাসী।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত