সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বড়লেখায় চা-বাগানের কোটি টাকা ‘আত্মসাৎকারী’ ২ দিনের রিমান্ডে



বড়লেখা প্রতিনিধি ::মৌলভীবাজারের বড়লেখা উপজেলার কেরামতনগর চা-বাগানসহ বিভিন্ন জনের নিকট থেকে প্রায় কোটি টাকার অধিক হাতিয়ে গ্রেফতার হওয়া হিসাবরক্ষক মারুফের গতকাল সোমবার ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। এর আগে সকালে কারাগার থেকে চা-বাগানের জেনারেল ম্যানেজারের দায়ের করা মামলায় মারুফকে বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে হাজির করা হয়। দুপুরে মামলার তদন্ত কর্মকর্তা মৌলভীবাজার সিআইডি পুলিশের এসআই আরিফুল ইসলাম আসামি মারুফের ৫ দিনের রিমান্ড প্রার্থনা করেন।
দীর্ঘ শুনানি শেষে সিনিয়র ম্যাজিস্ট্রেট হাসান জামানের আদালত আসামির ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। মারুফ কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের রাজনগর গ্রামের আব্দুল হাই মাস্টারের ছেলে।
জানা গেছে, মারুফ আহমদ (৪৫) বড়লেখার কেরামতনগর ও কুমারসাইল চা-বাগানের হিসাবরক্ষক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। চা-বাগানের দু’টি ব্যাংকের পৃথক ৫ অ্যাকাউন্টের চেকবই, হিসাবনিকাশ ছাড়াও ভূসম্পত্তির যাবতীয় কাগজপত্র তাঁর কাছে সংরক্ষিত ছিল। গত ১২ জানুয়ারি বাগান কর্তৃপক্ষকে না জানিয়ে হঠাৎ তিনি উধাও হয়ে যান। তাঁর ব্যবহৃত মোবাইলফোনও বন্ধ পাওয়ায় বাগানের জেনারেল ম্যানেজার মিজানুর রহমান গত ১৬ জানুয়ারি বড়লেখা থানায় জিডি করেন। পরদিন ৫টি ব্যাংক হিসাবের স্টেটমেন্ট সংগ্রহের পর ১ কোটি ১ লাখ টাকা আত্মসাতের ঘটনা ধরা পড়ে। এছাড়া বাগানের আরও ২০-২৫ লাখ টাকা গরমিল থাকার বিষয় নিশ্চিত হয়ে ১৮ জানুয়ারি জেনারেল ম্যানেজার মিজানুর রহমান মারুফসহ ৩ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে মামলাটি সিআইডি পুলিশে স্থানান্তরিত হয়। এরপর সিআইডি পুলিশের নির্দেশে ডিএমপির শাহবাগ থানার এএসআই হেলাল উদ্দিনের নেতৃত্বে গত সোমবার রাতে পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে।
এদিকে চা-বাগানে দীর্ঘদিন চাকুরির সুবাদে মারুফ স্থানীয় বিভিন্ন পেশাজীবীর সাথে সুসম্পর্ক গড়ে তোলেন। ব্যবসা-বাণিজ্য ও বাগানের সমস্যা তুলে ধরে বিভিন্নজনের নিকট থেকে তিনি আরো প্রায় অর্ধকোটি টাকা ঋণ নেন। নিখোঁজ হওয়ায় তাঁর প্রতারণার ঘটনাগুলো ফাঁস হতে থাকে।
বড়লেখা সিনিয়র জুডিশিয়েল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জিআরও এএসআই বকুল হোসেন অর্থ প্রতারণা মামলায় মারুফ আহমদের ২ দিনের রিমান্ড মঞ্জুরের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত