বৃহস্পতিবার, ২২ অগাস্ট ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ ভাদ্র ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

শীর্ষ বৈঠকে হাসিনা-মোদি



নিউজ ডেস্ক ::ভারত সফরের ব্যস্ততম দিনে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনার পর ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে একান্ত বৈঠকে বসেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। শনিবার স্থানীয় সময় সকাল সাড়ে ১১টায় ভারতের প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর হায়দ্রাবাদ হাউজে এই বৈঠকে বসেন তারা।
এই বৈঠকের পরপরই দ্বিপক্ষীয় বৈঠক হবে, যাতে দুই দেশের মধ্যে চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকগুলো সই হবে। এর মধ্যে প্রতিরক্ষা, সাইবার নিরাপত্তা, পরমাণু বিদ্যুৎ, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি, স্যাটেলাইট ও মহাকাশ গবেষণা, ঋণ সহযোগিতা, বর্ডার হাট স্থাপন, কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপন এবং বিদ্যুৎ ও জ্বালানি ক্ষেত্রে সহযোগিতার চুক্তি ও এমওইউ থাকছে।
শেখ হাসিনার এই সফর দুই দেশের সম্পর্ককে নতুন মাত্রায় উন্নীত করবে বলে আশাবাদ প্রকাশ করেছেন মোদি। শুক্রবার নয়া দিল্লিতে নামার পর অপ্রত্যাশিতভাবেই মোদি বিমানবন্দরে উপস্থিত হন বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে অভ্যর্থনা জানাতে।
এই সফরে শেখ হাসিনা থাকছেন রাষ্ট্রপতি ভবনে, যাও কোনো সরকার প্রধানের জন্য বিরল সম্মান বলে ভারতের কূটনীতিকরা জানিয়েছেন। বন্ধুত্বকে বহতা নদীর সঙ্গে তুলনা করে শেখ হাসিনাও বলেছেন, তার এই সফরের মধ্য দিয়ে দুই দেশের সহযোগিতা এক নতুন উচ্চতায় পৌঁছবে।
শনিবার সকালে রাষ্ট্রপতি ভবনে মোদীর উপস্থিতিতে আনুষ্ঠানিক অভ্যর্থনা নেওয়ার পর রাজঘাটে মহাত্মা গান্ধীর সমাধি সৌধে ফুল দিয়ে হায়াদ্রাবাদ হাউজে যা শেখ হাসিনা।
দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পরের পর্বে শেখ হাসিনা ও মোদি হিন্দি ভাষায় ‘বঙ্গবন্ধুর অসমাপ্ত আত্মজীবনীর’ মোড়ক উন্মোচন করবেন। সেখানে মধ্যাহ্ন ভোজের আগে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে আসবেন তারা।
দিনের কর্মসূটিতে দ্বিপক্ষীয় বৈঠকের পর বিকালে মানেক শ সেন্টারে মুক্তিযুদ্ধে ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর শহীদদের সম্মাননা অনুষ্ঠানে যোগ দেবেন শেখ হাসিনা। সাত শহীদ পরিবারের সদস্যের হাতে মুক্তিযুদ্ধ সম্মাননা তুলে দেবেন তিনি। সেখানে মোদীরও বক্তব্য দেওয়ার কথা রয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত