রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় এলাকাবাসীর প্রতিক্রিয়া : জঙ্গি রিপনের ফাঁসি হওয়ায় আমরা কলঙ্কমুক্ত



কুলাউড়া প্রতিনিধি ::সিলেট কেন্দ্রীয় কারাগারে বন্দি ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামি জঙ্গি রিপনের ফাঁসি কার্যকর হয়েছে। সর্বশেষ জঙ্গি রিপনের রাষ্ট্রপতির নিকট প্রাণভিক্ষার আবেদন নাকচ হওয়ার পর কুলাউড়া উপজেলার ব্রাহ্মণবাজার ইউনিয়নের কোনাগাঁও তাঁর বাড়িতে নিরাপত্তাজনিত কারণে ইতঃপূর্বে কয়দিন মোতায়েন করা হয়েছিল পুলিশ। এখন তার গ্রামের বাড়িতে বিরাজ করছে নীরবতা। পরিবারের কেউই এ বিষয় নিয়ে কথা বলতে নারাজ। ফাঁসির পর তারা জঙ্গি রিপনের লাশ বাড়িতে আনবেন কিনা এ নিয়ে সুস্পষ্ট কিছু বলেননি। তবে স্থানিয় মসজিদের পাশে একটি কবর খুড়ে রাখা হয়েছে বলে স্থানিয়রা জানান।
এ ব্যাপারে কোনগাঁও এলাকার বিভিন্ন জনপ্রতিনিধি, শিক্ষক, ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষের সাথে আলাপ করলে তারা বলেন, জঙ্গি রিপনের ফাঁসি কর্যকরের মাধ্যমে এই এলাকা কলঙ্কমুক্ত হয়েছে। জঙ্গিদের ব্যপারে তাঁরা সবাই সজাগ রয়েছেন। আগামীতে যাতে এ এলাকায় কোনো জঙ্গির জন্ম না হয় সে ব্যাপারে সবাই সজাগ আছেন বলে জানান।
এ ব্যপারে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও ব্যবসায়ী সাইফুর রহমান শাহিন জানান, জঙ্গি রিপনের ফাঁসি কর্যকর হওয়ায় আমরা মনে করি পুরো এলাকাবাসী কলঙ্কমুক্ত হয়েছি। সে অপরাধি তাঁর শাস্তি হয়েছে।
যুবলীগ নেতা মিনহাজ উদ্দিন কমরু বলেন সরকার দেশের জঙ্গী নির্মুলে ততপর এরই ধারাবাহিকতায় জঙ্গি রিপনের ফাঁসি কার্যকর হওয়ায় আমরা খুশি। কোনাগাঁও এলাকার এক শিক্ষক নাম না প্রকাশ করার শর্তে বলেন, রিপনের ফাঁসি হওয়ায় আমরা এলাকাবাসী আনন্দিত। কারো ঘরে যেন এমন কুসন্তানের জন্ম না নেয় এমনটাই প্রত্যাশা করছি।
এই এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত কুলাউড়া থানার ওসি শামসুদ্দোহা পিপিএম জানান, জঙ্গি রিপনের বাড়িতে পুলিশ পাহারা বর্তমানে নেই। তবে তাঁর বাড়িটি নজরদারিতে রাখা হয়েছে। সিলেট থেকে নির্দেশ পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত