শুক্রবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচন নিয়ে ছাতকে সংঘর্ষে আহত শতাধিক



ছাতক প্রতিনিধি ::ছাতকে বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষে নারী-শিশুসহ শতাধিক লোক আহত হয়েছেন। গুরুতর আহত অন্তত ২৫জনকে ভর্তি করা হয়েছে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। গতকাল শনিবার সকালে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের চেচান বাজার এলাকায় চেচান গ্রামের তালূকদার ও খৈয়া গোত্রের লোকদের মধ্যে এ সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। প্রায় দেড় ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষে সিলেট-সুনামগঞ্জ সড়কের উভয় পাশে যাত্রী ও মালবাহী গাড়ি আটকা পড়ে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হয়।
স্থানীয় ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, দক্ষিণ খুরমা ইউনিয়নের চেচান গ্রামের তালুকদার ও খয়ের উল¬াহ ওরফে খৈয়া গোত্রের মধ্যে আধিপত্য নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। বৃহস্পতিবার সিপিবি উচ্চবিদ্যালয় পরিচালনা কমিটি নির্বাচনে তালুকদার গোত্রের প্যানেল বিজয়ী হয়। এ নিয়ে উভয় গোত্রের মধ্যে দু’দিন ধরে উত্তেজনা বিরাজ করছিল। নির্বাচনে জয়-পরাজয় নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে পক্ষে-বিপক্ষে উস্কানিমূলক স্ট্যাটাস দেওয়া হয়। এ নিয়ে তালুকদার গোত্র এবং খৈয়া গোত্রের লোকজন সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। সংঘর্ষে দেশীয় অস্ত্র, ইটপাটকেল ও কাচের বোতল ব্যবহার করা হয়। সংঘর্ষ চলাকালে দুটি প্রাইভেট গাড়ি ও একটি দোকানকোঠা ভাঙচুর করা হয়। সংঘর্ষে উভয় গোত্রের শতাধিক লোক আহত হন। ছাতক থানা, জাউয়া ফাঁড়ি ও সুনামগঞ্জ থেকে অতিরিক্ত পুলিশ এসে সংঘর্ষ নিয়ন্ত্রনে আনে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।
সংঘর্ষে গুরুতর আহত দিলোয়ার হোসেন (১৭) গিয়াস উদ্দিন (৪০), আবুল বশর (৩২), আব্দুল আওয়াল (৫০), আব্দুল হাফিজ (৪৫), রাজন মিয়া (৫০), সামছুদ্দিন (২৫), শিপু (২২), শাহিন মিয়া তালুকদার (৩৫) শফিক মিয়া (৫০), আজিজুল হক (৪০), কিরন মিয়া (৪৫), মামুন (২৬), শিহাব (২৫)-সহ অন্তত ২৫জনকে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। মাহবুব (১৪), আওয়াল (৪০), রুবেল (২২), সুজেল (১৯) ইলিয়াছ (৪০), জোস্না বেগম (২২), মারজান গেগম (১৬), আকলিমা (১৮), রেবিনা বেগম (২৫), শাহ আলম (২৮), রেজাউল (২২), হিজ্জুল (২২), আব্দাল (২৪), নাজমুল (১৮), লায়লা বেগম (৪০), আতিক (২৫), সুজেল (১২), এমাদ (২৪), আওয়াল (৪০), রুবেল (২২), রজব উদ্দিন (৩৫)-সহ অন্য আহতদের স্থানীয় কৈতক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
উভয় গোত্রের লোকজনের মধ্যে এখনো বিরাজ করছে টানটান উত্তেজনা। ছাতক থানার ওসি আতিকুর রহমান জানান, পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। ফের সংঘর্ষ এড়াতে মোতায়েন করা হয়েছে অতিরিক্ত পুলিশ।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত