বৃহস্পতিবার, ২২ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৮ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

নবীগঞ্জে অনশনরত প্রেমিকাকে বিয়ে করলো প্রেমিক



নবীগঞ্জ সংবাদদাতা:: নানা জল্পনা কল্পানার অবসান ঘটিয়ে টানা ৪ দিনের মাথায় অনশনরত প্রেমিকাকে বিয়ে করতে বাধ্য হলো প্রেমিক।
বুধবার বিকেলে প্রেমিকা সেলিনা আক্তার শারমিনকে ইসলামী শরিয়াহ মোতাবেক স্ত্রী হিসেবে গ্রহণ করে প্রেমিক ময়নুল।
এর আগে দীর্ঘদিন ধরে প্রেম করে আসলেও বিয়ের কথা উঠলে পরিবারের ভয়ে পিছপা হয় ময়নুল। এ নিয়ে এলাকায় তোলপাড় সৃষ্টি হয়।
জানা যায়, উপজেলার দীঘলবাঁক ইউনিয়নের কামারগাঁও পয়েন্টেস্থ ময়নুল টেলিকম ও ডিজিটাল স্টুডিওর মালিক ময়নুল ইসলামের সাথে নুরগাঁও গ্রামের ক্ষুদে ব্যবসায়ী হুশিয়ার আলীর মেয়ে সেলিনা আক্তার শারমিনের সাথে প্রেমের সর্ম্পক গড়ে উঠে। প্রায় দুই বছর প্রেম ও প্রণয়ের দাবি করে তাকে জীবন সঙ্গী করতে রোববার ময়নুলের মালিকানাধিন দোকানে দাবি জানালে এক পর্যায়ে বাক-বিতন্ডায় জড়িয়ে পড়ে তারা। সেখানে পরিস্থিতি ঠান্ডা করতে কোর্ট ম্যারেজের আশ্বাস দিলেও প্রেমিকা রাজি না হওয়ায় নিজের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয় প্রেমিক। পরে ময়নুল গা ঢেকে দেয়। প্রেমিক পরিবার বিষয়টি মেনে না নিলে প্রেমিকা সেখানে অনশন শুরু করেন । এরমধ্যে স্থানীয় ইউনিয়ন চেয়ারম্যানসহ সালিশ বসিয়ে কোন কাজ না হওয়ায় থানায় আশ্রয় নেন প্রেমিকার মা ঝর্না। থানা থেকে বিষয়টি সুরাহা করে দেওয়ার আশ্বাস দেওয়া হয়।
এ ব্যাপারে দীঘলবাক ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আবু সাঈদ এওলা মিয়া অনশনের সত্যতা স্বীকার করে বলেন, একাধীকবার এলাকার বিজ্ঞ মুরুব্বিয়ানদের নিয়ে বিষয়টি সামাধানের চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়েছি আজ এলাকার লোকজনের মুখে শুনেছি তাদের বিয়ে হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত