বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় সিএনজি চোর চক্রের ৪জন আটক, সিএনজি উদ্ধার



তারেক হাসান:: মৌলভীবাজারের কুলাউড়া থানা পুলিশের বিশেষ টিমের অভিযানে আন্তঃজেলা সিএনজি চোর চক্রের ৪জনকে ১টি চোরাই সিএনজি সহ আটক করেছে।
বৃহস্পতিবার (২৭এপ্রিল) বিকাল সাড়ে ৪টায় কুলাউড়া থানায় এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে থানার অফিসার ইনচার্য সামছুদ্দোহা পিপিএম জানান চক্রটি জেলার বিভিন্ন এলাকা থেকে সিএনজি চুরি করে নিয়ে কৌশলে সিএনজি মালিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে চোরাই সিএনজি ফেরত দেয়। কেউ যদি তাদের চাহিদা অনুযায়ি অর্থ দিতে না পারে তাহলে খুচরা যন্ত্রাংশ খোলে সিএনজিটি বিক্রি করে দেয়। আটকৃতরা হলো সিলেট জেলার জকিগঞ্জ থানার খলিলুর রহমানের ছেলে ফয়ছল আহমদ(২৬) ও আবুল কালামের ছেলে জাকির হোসেন(২৬), হবিগঞ্জ জেলার চুনারুঘাট থানার মৃত আঃ মোতালেবের ছেলে তাজুল ইসলাম (৩৫) এবং মৌলভীবাজার জেলার রাজনগর থানার নিশি দেবের ছেলে রিপন দেব ওরফে রিপন আহমদ (২৮)। আটক রিপন আহমদ নিজেকে সিলেট যুবলীগের একজন সদস্য বলে দাবী করে।
থানা সুত্রে জানা যায়, গত শনিবার দিবাগত রাতে কুলাউড়া উপজেলার টিলাগাঁও ইউনিয়নের পাল্লাকান্দি গ্রামের আব্দুস সালাম এর বাড়ির গেইটের তালা ভেঙ্গে বসত ঘরের বারান্দা থেকে একটি সিএনজি চুরি হয়। এ ব্যাপারে পরদিন সিএনজির মালিক বাদি হয়ে (২৩এপ্রিল) কুলাউড়া থানায় একটি চুরির মামলা দায়ের করেন। মামলার ভিত্তিতে কুলাউড়া থানার ওসি তদন্ত বিনয় ভূষন রায়সহ মোট ০৫জন অফিসারের সমন্বয়ে একটি বিশেষ টিম গঠন করা হয়। তারা ব্যপক অনুসন্ধান চালিয়ে প্রথমে ফয়ছলকে আটক করে তার দেয়া তথ্য মতে মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ ও সিলেটের বিভিন্ন স্থান থেকে অপর ৩জনকে আটক করা হয়।
আটক ৪জন সিএনজি চোর চক্রের সদস্য চাঞ্চল্যকর তথ্য দিয়ে জানায় সিএনজি উদ্ধারের জন্য প্রথমে ৫০হাজার টাকা দাবি করে চোখ বেধেঁ সিলেটের একটি বাড়িতে নিয়ে চোখের বাধন খুলে তার সিএনজিটি দেখায়। বাদী সিএনজিটি সনাক্ত করলে ৫০ হাজার টাকার পরিবর্তে তখন চাওয়া হয় ১লাখ ৬০হাজার টাকা। বাদি দাবিকৃত অর্থ দিতে ব্যর্থ হয়ে পুনরায় কুলাউড়া থানা পুলিশের স্মরনাপন্ন হয়। পুলিশের বিশেষ টিমটি গত বুধবার দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় মৌলভীবাজারের শেরপুর বাসষ্ট্যান্ডের জনতা হোটেলের পাশে খোলা যায়গা থেকে সিএনজিটি উদ্ধার করে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত