রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বড়লেখায় এইচএসসি’র একটি বিষয়ের ১ম পত্রের স্থলে ২য় পত্রের প্রশ্ন কেন্দ্রে যাওয়া নিয়ে তোলপাড়



বিশেষ প্রতিনিধি: বড়লেখা ডিগ্রী কলেজ কেন্দ্রে ১১মে বৃহস্পতিবার বড় ধরনের একটি প্রশ্নপত্র ফাঁসের ঘটনা ঘটতে যাচ্ছিল। এইচএসসি পরীক্ষার ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপনন বিষয়ের ১ম পত্রের পরিবর্তে ২য় পত্রের প্রশ্নপত্র কেন্দ্রে নেয়ার ঘটনা ঘটেছে। পরীক্ষার্থীর হাতে পৌছার পূর্ব মুহূর্তে বিষয়টি ধরা পড়ায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের বড় ঘটনা থেকে দেশের হাজার হাজার শিক্ষার্থী রক্ষা পায়। যদিও থানা থেকে সঠিক প্রশ্নপত্র সংগ্রহ করে ১ম পত্রের পরীক্ষা নিতে এ কেন্দ্রের ৭৫ জন পরীক্ষার্থীর ২০-২৫ মিনিট সময় হারাতে হয়েছে। প্রশ্নপত্র পরিবর্তনের এ ঘটনায় শিক্ষা বিভাগ ও প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়। বিভিন্ন সূত্রে জানা গেছে, রুটিন অনুযায়ী ১১ মে বৃহস্পতিবার সকালের শিফটে ব্যবসায় শিক্ষা বিভাগের উৎপাদন ব্যবস্থাপনা ও বিপনন বিষয়ের ১ম পত্রের পরীক্ষা ছিল। সকাল সাড়ে ৮টায় বড়লেখা ডিগ্রী কলেজের কেন্দ্র সচিব ও অধ্যক্ষ অরুন কুমার চক্রবর্তী থানা থেকে প্রশ্নপত্র গ্রহণ করেন। কেন্দ্রের কন্ট্রোল রুমে প্রশ্নপত্র সটিং করা হয়। পরীক্ষা শুরুর কিছুক্ষণ পূর্বে হঠাৎ ১ম পত্রের স্থলে ২য় পত্রের এমসিকিউ প্রশ্ন আনার বিষয় ধরা পড়ে। ২য় পত্রের পরীক্ষা আগামী ১৩ মে অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। এরপর তাৎক্ষণিক কেন্দ্র সচিব থানায় গিয়ে ২য় পত্রের এমসিকিউ প্রশপত্র রেখে ১ম পত্রের এমসিকিউ প্রশ্ন নিয়ে আসেন। ততক্ষণে পরীক্ষা শুরুতে অন্তত ২০-২৫ মিনিট বিলম্ব হয়। প্রশ্নপত্র পরিবর্তনের ঘটনা জানাজানি হলে শিক্ষা বিভাগ ও প্রশাসনে তোলপাড় শুরু হয়।
কেন্দ্রের সচিব ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ অরুণ কুমার চক্রবর্তী ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জানান, ‘প্রশ্নপত্রের প্যাকেটের উপরের লেখা অস্পষ্ট থাকায় ভুলবশতঃ ঘটনাটি ঘটেছে। তবে শিক্ষার্থীর হাতে পৌছার পূর্বেই বিষয়টি ধরা পড়ায় প্রশ্নপত্র ফাঁসের কোন আশংকা নেই।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত