বুধবার, ২১ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কুলাউড়ায় তিন ব্যাপী বার্ষিক তাবুবাস ও দীক্ষা ক্যাম্প সমাপ্ত



বিশেষ প্রতিনিধি: মৌলভীবাজারের অতিরিক্ত সহকারী পুলিশ সুপার মোঃ রওশনুজ্জামান সিদ্দিকী বলেছেন, ইসলাম প্রতিষ্ঠার নামে মানুষ হত্যা করে বেহেস্তে যাওয়া যায় না। মানুষ হত্যা শুধু ইসলাম নয় কোন ধর্মই সমর্থন করে না। সুতারাং কেউ এ পথে এগিয়ে জীবন ধ্বংষ করবেন না। বর্তমানে মাদক ও জঙ্গীবাদ একটি ভয়াবহ সমস্যা। দেশ যখন সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে যাচ্ছে ঠিক তখনই পশ্চিমা একটি মহল মাদক ও জঙ্গিবাদ সৃষ্টি করে বাংলাদেশকে উন্নয়নের মহা সড়ক থেকে সরিয়ে দেয়ার চেষ্টা করছে। তারা সফল হবে বলে আমার মনে হয় না। ১৯মে শুক্রবার বিকেলে কুলাউড়া উপজেলার পৃথিমপাশা ইউনিয়নের সদপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে লংলা শতাব্দী মুক্ত স্কাউট গ্র“পের তিন ব্যাপী বার্ষিক তাবুবাস ও দীক্ষা ক্যাম্পের সমাপনি অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য তিনি এসব কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, স্কাউট একটি শৃঙ্খলা বাহিনী। এরা সরকারী বাহিনীর পাশাপাশি জরুরী মুহুর্তে নানা প্রতিকূলতা এড়িয়ে দেশ ও সমাজের জন্য কাজ করে। এরা সরকারের সহায়ক শক্তি।
তিনি স্কাউটারদের উদ্যেশে বলেন, অন্য যা কিছু করো না কেন। সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে। প্রথম কাজ হলো লেখা পড়া, পিতা-মাতা বড়দের সম্মান করে লেখা পড়া করতে হবে। সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হলেই সমাজ ও রাষ্ট্রের পরিবর্তন করা সম্ভব।
অনুষ্ঠানে লংলা শতাব্দী মুক্ত স্কাউট গ্র“পের সভাপতি মাসুদ রানা আব্বাছের সভাপতিত্বে ও স্কাউট লিডার মিজানুর রহমানের পরিচালনায় বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন পৃথিমপাশা ইউপি চেয়ারম্যান নবাব আলী বাকর খান, কর্মধা ইউপি চেয়ারম্যান এমএ রহমান আতিক, সিলেট রেলওয়ে জেলা মুক্ত স্কাউট গ্রুপের সাধারণ সম্পাদক আনিছুর রহমান সরকার, রবিবাজার ব্যবসায়ী কল্যান সমিতির সভাপতি আব্দুল হান্নান, সিলেট রেলওয়ে জেলা মুক্ত স্কাউট গ্র“পের লিডার শম্পা রায়, সদপাশা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক সামছুন নাহার, সহকারী শিক্ষক নুরুল ইসলাম ফয়েজ, কুলাউড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সাধারণ সম্পাদক সেলিম আহমেদ। স্বাগত বক্তব্য দেন স্কাউট লিডার আলমগির সিদ্দিকী, সীমান্তের ডাকে পৃথিমপাশা প্রতিনিধি রাজু আহমদ।
এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন দৈনিক সংবাদ প্রতিদিনের কুলাউড়া প্রতিনিধি সৈয়দ আশফাক তানভীর, পূর্বপশ্চিম বিডির জেলা প্রতিনিধি এম. এ. কাইয়ুম, ব্যবসায়ী নেতা মাসুক মিয়া প্রমূখ।
উল্লেখ্য, তিন ব্যাপী স্কাউটের দীক্ষা ক্যাম্পে ৫৫ জন স্কাউটার অংশ নেন। এদের প্রশিক্ষন দেন ৬ জন স্কাউট লিডার।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত