বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

স্ত্রী ও শ্যালিকা ছোঁড়া এসিডে ঝালসে গেল আলমগীর



নিউজ ডেস্ক::সীতাকুণ্ড উপজেলার বাড়বকুণ্ড ইউনিয়নের ভাটেরখীল গ্রামে স্ত্রী ও শ্যালিকা ছোঁড়া এসিডে আলমগীর নামে এক ব্যক্তির শরীর ঝালসে গেছে। সোমবার (১০ জুলাই) বিকাল ৫ টার সময় এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, সোমবার বিকালে কাজ শেষে বাসায় ফেরার পর স্ত্রী লাকি আক্তারের সাথে সংসারের বিষয় নিয়ে ঝগড়া শুরু হয় আলমগীরের। ঝগড়ার এক পর্যায়ে তার স্ত্রী লাকি আক্তার ও শ্যালিকা শাকি আক্তার দু’জন মিলে আলমগীরকে সজোরে আঘাত করে মাটিতে ফেলে দেয়। এ সময় লাকি আক্তার ঘরে থাকা এসিড তার স্বামী আলমগীরকে লক্ষ্য করে ছুঁড়ে মারে। এতে গলা, বুক ও ডান হাতসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ঝলসে গিয়ে মারাত্মকভাবে দগ্ধ হয় আলমগীর। এ ঘটনার পর দগ্ধ আলমগীরের স্ত্রী লাকি আক্তার ও তার শ্যালিকা বাসা ছেড়ে অন্যত্র পালিয়ে গেছে বলেও জানান স্থানীয়রা।

এসিডে দগ্ধ আলমগীরের মামা রফিক উদ্দিন ছিদ্দিকী বলেন, “এসিড নিক্ষেপের কারণে আলমগীরের শরীরের বিভিন্ন স্থানের চামড়া ও মাংস ঝলসে গেছে। বর্তমানে সে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ণ ইউনিটে চিকিৎসাধীন রয়েছে। ঘটনার পর দগ্ধ আলমগীরের স্ত্রী ও শ্যালিকা বাসা ছেড়ে পালিয়ে গেছে। এ ব্যাপারে দগ্ধ আলমগীরের সাথে কথা বলে আইনি ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে বলে জানান তিনি।”

প্রতিবেশীরা জানায়, সংসারের খুটিনাটি বিষয়ে ঝগড়া লেগে মোঃ আলমগীর হোসেন (৩০) কে তার স্ত্রী লাকি আক্তার এসিড ছুঁড়ে মারে। এতে গলা, বুক ও ডান হাতসহ শরীরের অনেকাংশ ঝলসে গিয়ে মারাত্মকভাবে দগ্ধ হয় স্বামী আলমগীর।

এসময় তার আত্মচিৎকারে স্থানীয়রা ছুটে গিয়ে আলমগীর হোসেনকে উদ্ধার করে প্রথমে সীতাকুণ্ড উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। কিন্তু তার অবস্থা আশঙ্খাজনক হওয়ায় ডাক্তাররা সেখান থেকে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত