শুক্রবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৫ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

জাকির নায়েকের পাসপোর্ট বাতিল করতে যাচ্ছে ভারত



আন্তর্জাতিক ডেস্ক:: বিতর্কিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েকের পাসপোর্ট বাতিল করতে যাচ্ছে ভারত সরকার। ভারতীয় পাসপোর্ট বিভাগ থেকে জানানো হয়েছে, ২০১৬ সালে ঢাকায় ‘হলি আর্টিজান ক্যাফে’ হামলায় জাকিরের বিরুদ্ধে অভিযোগ থাকায়, তার পাসপোর্ট কেনো বাতিল করা হবেনা- এই মর্মে একটি কারণ দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে।
গত সপ্তাহে ইস্যুকৃত ওই নোটিশে আরো বলা হয়েছে, আগামী ১৩ জুলাইয়ের মধ্যে ৫১ বছর বয়সী জাকির নায়েককে এর কারণ দর্শাতে হবে। অন্যথায় তার পাসপোর্টসহ অন্যান্য ভ্রমণ সংক্রান্ত কাগজপত্র অবৈধ ঘোষণা করা হবে।
ভারতীয় কর্মকর্তাদের বরাতে জানা গেছে, সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ডে মদদদান ও অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনায় জাকিরের বিরুদ্ধে তদন্ত চালাচ্ছে ভারতীয় গোয়েন্দা সংস্থা (এনআইএ)। এছাড়া ঢাকার গুলশানে হলি আর্টিজানে নিহত জঙ্গিদের কয়েকজন জাকির নায়েকের বক্তব্যে অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন বলে অভিযোগ রয়েছে। গুলশান হামলার পর জাকির নায়েকের কার্যকলাপ নজরদারিতে আনা হয়। এর পরপরই ১ জুলাই ২০১৬ সালে তিনি ভারত ছেড়ে সৌদি আরবে আশ্রয় নেন এবং পরবর্তীতে সেদেশের নাগরিকত্ব নিয়ে বসবাস শুরু করেন।
ধারণা করা হচ্ছিল, জাকির নায়েক গ্রেপ্তার এড়াতে সৌদি আরবে অবস্থান করছেন। গত বছরের নভেম্বরে ভারতের জাতীয় তদন্ত সংস্থা (এনআইএ) জাকির নায়েক ও তার সহযোগীদের বিরুদ্ধে মামলা করে। এছাড়া তার প্রতিষ্ঠিত ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশন (আইআরএফ) নিষিদ্ধ করেছে ভারত।

জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন গোষ্ঠীর মধ্যে ধর্ম নিয়ে বিদ্বেষ ছড়ানো এবং সম্প্রীতি নষ্ট করার অভিযোগ তোলা হয়েছে। ভারতের কেন্দ্রীয় সরকার তার প্রতিষ্ঠিত আইআরএফকে অবৈধ প্রতিষ্ঠান হিসেবে ঘোষণা করে। আইআরএফের প্রেসিডেন্ট ও এর সদস্যরা ‘অবৈধ কার্যকলাপকে’ প্রশ্রয় দিচ্ছেন উল্লেখ করে দিল্লি হাইকোর্ট সম্প্রতি প্রতিষ্ঠানকে নিষিদ্ধ ঘোষণার সিদ্ধান্ত বহাল রেখেছেন। জাকির নায়েকের বক্তব্যের কারণে আইআরএফকে যুক্তরাজ্য ও কানাডায় নিষিদ্ধ করা হয়েছে। এ ছাড়া মালয়েশিয়ায় নিষিদ্ধ ১৬ চিন্তাবিদের একজন জাকির নায়েক।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত