মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ১ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

বেড়েছে কুকুরের উৎপাত, আতঙ্কিত শ্রীমঙ্গলবাসী



তোফায়েল আহমেদ পাপ্পু, শ্রীমঙ্গল:: শ্রীমঙ্গলে বেড়েছে কুকুরের উৎপাত। প্রতিদিনই শহরের কোনো না কোনো পাড়া-মহল্লায় কুকুরের কামড়ে আহত হচ্ছেন নারী, শিশু কিংবা বয়স্করা।
শহরের বিভিন্ন পর্যায়ের মানুষের সাথে কথা বলে জানা যায়, বিভিন্ন এলাকার অলিগলিসহ সর্বত্রই বেড়েছে কুকুরের উপদ্রব। বেওয়ারিশ কুকুরের উপদ্রবে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছেন শহরবাসী। সংঘবদ্ধ কুকুরের দলের চিৎকার, ঝগড়া আর চেঁচামেচিতে অনেকেরই রাতের ঘুম হারাম হয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে শহরের সন্ধানী আ/এ, শাহীবাগ আ/এ, মিশন রোড এলাকা, দেববাড়ী সড়ক, শাপলাবাগ, সবুজবাগ, কলেজ রোড, জেটি রোডসহ প্রভৃতি এলাকায় কুকুরের অত্যাচারে সবচেয়ে বেশি সমস্যায় আছেন নিম্নবিত্তরা।
জানা যায়, গত বুধবার শ্রীমঙ্গল সন্ধানী আবাসিক এলাকার পংকজ পালের সাড়ে তিন বছরের শিশু কন্যা পল্লবী পালকে কুকুরে কামড় দিয়ে গুরুত্বর আহত করেছে। এ ছাড়া ও ২নং পুলের সন্তোষ দেবসহ আরো আটজন পথচারিকে কামড় দিয়ে আহত করেছে। পংকজ পাল জানান, আমার বড় ছেলেকে তার মা স্কুল থেকে ছুটি হওয়ার পর বাসায় নিয়ে আসার পথে ছোট মেয়েকে কুকুর কামড় দিয়ে আহত করে।
সন্ধানী আবাসিক এলাকার বাসিন্দা দুলাল দত্ত জানান, কুকুরের উপদ্রব দেখে আতঙ্কিত এলাকাবাসী। সাধারণ মানুষ জানায় কুকুরের কামড়ের ভয়ে বাচ্চারা স্কুলে যেতে চাচ্ছেনা। আমরাও কুকুরের ভয়ে ছেলে মেয়েদের স্কুলে পাঠাতে পারছিনা। তাছাড়া রাস্তা ঘাটে চলাফেরাও করতে মনে আতঙ্ক কাজ করছে।
বারিধারা আবাসিক এলাকার তানভীর জানিয়েছে তাদের এলাকাতেও আরো একজনকে কুকুরে কামড় দিয়েছে।
শ্রীমঙ্গল উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রের জরুরি বিভাগ থেকে জানা যায়, গত দুই দিনে কুকুরের কামড়ে মোট ছয় জন ব্যাক্তি ভর্তি হয়েছে। এর মধ্যে খুব বেশী গুরুতর অবস্থায় ছিলেন একজন। এলাকাবাসী জানান, যেহেতু বেশ কয়েকজন কুকুরের কামড়ে আহত হয়েছে, তাই ইউনিয়ন ও পৌর চেয়ারম্যানের কাছে অনুরোধ রইল রাস্তায় বেওয়ারিশ কুকুরগুলো যাতে নিধন হয়।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত