রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

স্ত্রীকে সুন্দরী বানাতে গিয়ে মাস্টারের কাণ্ড!



নিউজ ডেস্ক::নিজের স্ত্রীকে একটু সুন্দরী বানাতে গিয়ে অদ্ভুত কাণ্ড ঘটালেন এক মাস্টারমশাই। বড় ইচ্ছা ছিল স্ত্রী সুন্দরী প্রতিযোগিতায় সেরা হবে। তবে সাধ্য ছিল না। কিন্তু তাই বলে শিক্ষক হয়ে এমন কাজ যে তিনি করে বসবেন, তা সত্যিই ভাবতে পারেননি তার পরিচিতরা। ইচ্ছেপূরণের তাগিদেই শপিংমল থেকে দামি শাড়ি চুরি করেন। আর সেই অপরাধে তাকে এখন যেতে হলো শ্রীঘরে। এমন খবর প্রকাশ হয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমে।

খবরে বলা হয়েছে, ছত্রিশগড়ের বিলাসপুর জেলার সরকন্দা এলাকার বাসিন্দা শ্রীকান্ত গুপ্তা। বিয়ের পর থেকে একটাই ইচ্ছে ছিল তার জীবনে। স্ত্রী প্রমীলা (২৬) যেন স্থানীয় ‘সাওন সুন্দরী’ প্রতিযোগিতায় সেরা হন। কিন্তু সুন্দরী হতে গেলে তো একটু সাজগোজও প্রয়োজন। সেই সঙ্গে প্রয়োজন দামি পোশাকও। এর জন্য নামী শপিং মলেও গিয়েছিলেন শ্রীকান্ত। কিন্তু ডিজাইনার শাড়ির যা দাম দেখলেন, সামান্য স্কুলশিক্ষকের চাকরিতে সে টাকা দিয়ে শাড়িটি কেনা অসম্ভব ছিল তার পক্ষে। তা বলে কি স্ত্রী সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নেবে না? সে কেমন করে হতে পারে? এই ভেবেই শেষে চুরির ফন্দি আঁটেন মাস্টারমশাই।

পরিকল্পনা অনুযায়ী শাড়ি চুরিও করেন। কিন্তু সেই শাড়িটি পরেই শ্রীকান্তের স্ত্রী প্রমীলা যখন ‘সাওন সুন্দরী’ প্রতিযোগিতার মঞ্চে আসেন, তখনই ধরা পড়ে যান। এক দর্শক শাড়িটি দেখে চিনতে পারেন। তিনিই শাড়ির দোকানের মালিককে খবর দেন। প্রায় সঙ্গে সঙ্গেই ঘটনাস্থলে এসে পৌঁছান দোকানমালিক। আপাতত জেল হেফাজতে রয়েছেন শ্রীকান্ত। গ্রেপ্তার করা হয়েছে তার স্ত্রীকেও।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত