রবিবার, ১৮ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কানাইঘাটে তিন’শ টাকার দায়ে যুবক খুন



কানাইঘাট প্রতিনিধি:: কানাইঘাটে মাত্র ৩ শত টাকার দায়ে হারুন নামের এক যুবককে কুপিয়ে খুন করা হয়েছে। সে উপজেলার লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির কালিনগর গ্রামের মন্তাজ আলীর পুত্র। জানা যায় সোমবার সুরাইঘাট বাজারে রাত সাড়ে ৮টায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাকে কুপিয়ে নির্মম ভাবে হত্যা করা হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীদের কাছ থেকে জানা যায় একই গ্রামের আফতাব উদ্দিনের পুত্র সুমন আহমদ নিহালপুর আমটিলা গ্রামের কবির আহমদের কাছে ঋণ বাবদ ৩ শত টাকা পাওনা ছিল। সে ঐদিন রাতে সুরইঘাট বাজারে গিয়ে উক্ত টাকা গুলো কবির আহমদকে পরিশোধের জন্য চাপ দিলে কবির আহমদের শ্যালক হারুন আহমদ সুমনের কাছে সময় চায়। আর এ সময় চাওয়াতেই সুমনের সাথে হারুনের বেশ কথা কাটাকাটি হয়। এতে সুমন ক্ষিপ্ত হয়ে ধারালো দেশীয় অস্ত্র বের করে হারুনকে এলোপাতাড়ী ভাবে কুপিয়ে পালিয়ে যায়। পরে স্থানীয় লোকজন হারুনকে গুরুতর আহত অবস্থায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসকগণ তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মাত্র ৩ শত টাকার জন্য এলাকার নিরীহ দরিদ্র হারুন আহমদকে নির্মম ভাবে হত্যার ঘটনার খবর পেয়ে হাসপাতালে ভিড় জমান লক্ষীপ্রসাদ পশ্চিম ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান ফারুক আহমদ চৌধুরী, স্থানীয় ইউপি সদস্য সিরাজুল ইসলাম, ইউপি সদস্য আলিম উদ্দিন সহ এলাকার লোকজন। নির্মম এ ঘটনাটি জানার সাথে সাথেই কানাইঘাট থানার ওসি মোঃ আব্দুল আহাদ ঘটনাস্থলে ছুটে যান এবং হত্যাকান্ডের সাথে জড়িত সুমন আহমদকে গ্রেফতার করার জন্য অভিযান শুরু করেন।
এমনকি সীমান্তবর্তী এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করেন। পাশাপাশি ঘাতককে ধরতে স্থানীয় এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গকে নিয়ে এলাকায় তৎপরতা চালাচ্ছেন। এরপর থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নুনু মিয়া হাসপাতালে এসে লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করেন।
এ ব্যাপারে কানাইঘাট থানার ওসি (তদন্ত) মোঃ নুনু মিয়া জানান মঙ্গলবার ভোরে হারুন আহমদের লাশ ময়না তদন্তের জন্য সিলেট ওমেক হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে এবং মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত