বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৪ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

“বাপ বেটা বাতিজা মিলে জামালগঞ্জের উন্নয়ন খাইছে গিলে” জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতির বিরুদ্ধে ২লক্ষ টাকা আতœসাতের অভিযোগ



জামালগঞ্জ(সুনামগঞ্জ)প্রতিনিধি:: সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী কর্তৃক কালীপুর নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার গৃহনিমার্ণ নামে ২লক্ষ টাকা আতœসাতের অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত কাল লিখিত অভিযোগে যানা যায়, জামালগঞ্জ উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আলহাজ্ব মোহাম্মদ আলী বিগত ২০১৬/২০১৭ অর্থ বছরে এডিবির ফান্ড থেকে কালীপুর নেছারিয়ার দাখিল মাদ্রাসার গৃহ নিমার্ণের জন্য ২লক্ষ টাকা উত্তোলন করে ১টাকার কাজ না করে সমুদয় টাকা আতœসাত করিয়েছেন। আরও জানা যায়, মাদ্রাসার একটি ঘর মেরামত করা হয় মাদ্রাসার নিজস্ব তহবিলের টাকা ব্যায় করে। এ বিষয়ে কালীপুর নেছারিয়ার দাখিল মাদ্রাসার ছাত্র/ছাত্রীর অভিবাবকসহ ১০জন সম্মলিত স্বাক্ষরিত একটি অভিযোগ ০৩আগষ্ট জামালগঞ্জ নির্বাহী অফিসারের বরাবরে দাখিল করে,সরেজমিনে তদন্তপুর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়ার অনুরোধ জানান। অভিযোগ কারীদের মধ্যে আমির হোসেন বলেন,কি কইমু সাংবাদিক ভাই হেই কয়েক দিন আগে হালির হাওরের জাঙ্গল মেরামত কইয়া মোহাম্মদ আলীর বড় পুলাডা ২লক্ষ তুইলা খাইয়া লাইছে,গেরামের মাইনষে অভিযোগ করছে। ভাতিজা নতুন মেম্বার হইছে হানিফায়ে ৪হাত পানির তলের রাস্তা মেরামত দেখাইয়া ৪০হাজার খাইয়া লাইছে। বাপ,পুত, ভাতিজা মিলে জামালগঞ্জের উন্নয়ন খাইয়া লাইব দি তলে তলে।
এব্যপারে কালীপুর নেছারিয়া দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওঃ নুরুল ইসলাম জানান,মামলার কারনে আমি অনুপস্থিত ছিলাম হাই কোটে রিট করে আমি বৈধতা পেয়েছি। টাকার ব্যপারে আমি কিছু জানি না।
ভারপ্রাপ্ত সুপার মাওঃ জিল্লুর রহমান বলেন,মাদ্রাসা পরিচালনা কমিটির সভাপতি হাজী মোহাম্মদ আলীকে জিজ্ঞাসা করলে বিস্তারিত জানতে পারবেন।
হাজী মোহাম্বদ আলীকে মোবাইল ফোনে জিজ্ঞাসা করলে তিনি বলেন,ঘড়ের কাজ করেছি,বাকি যে টুকু আছে করাব,টাকা সব উত্তোলন করি নাই।
জামালগঞ্জ উপজেলা নিবার্হী অফিসার প্রসূণ কুমার চক্রবর্তী সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বলেন, অভিযোগের আলোকে তদন্ত পূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেব।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত