রবিবার, ২১ জুলাই ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ শ্রাবণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ

সৌন্দর্য হারাচ্ছে ধূমপানের কারণে!



লাইফস্টাইল ডেস্ক::পুরুষ হোক কিংবা মহিলা, ধূমপান যে শরীরের পক্ষে ভাল না তা আমরা সবাই জানি। যিনি ধূমপান করেন তিনিও জানেন এই অভ্যাস তাঁর হৃদযন্ত্র, ফুসফুস, মস্তিষ্ক এমনকী যৌন জীবনকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে। তবে এর পাশাপাশি যে ধূমপান আপনার সৌন্দর্যেরও কত রকমভাবে ক্ষতি করতে পারে সেটা আসলে অনেকেরই অজানা।

ধূমপান শুধু শরীরকে ভিতর থেকে নয়, বাহ্যিক দিক থেকেও ক্ষতিগ্রস্ত করে। তাই ধূমপান ছাড়তে না পারলে তা শুধু আপনাকে অসুস্থই করবে না বরং আপনার সৌন্দর্যকেও নষ্ট করে দেবে।

ধূমপানের ফলে আপনার সৌন্দর্যে কি কি ধরণের প্রভাব পড়তে পারে দেখে নিনঃ

– হলুদ দাঁতঃ সবাই চায় তার হাসি উজ্জ্বল ঝলমলে হোক। কিন্তু যদি আপনি নিয়মিত ধূমপান করেন তাহলে সেই ইচ্ছাকে মন থেকে বিদায় জানাতে হবে। নিকোটিনের প্রভাবে দাঁতের ক্ষতি হবেই। দাঁতের রং বদলাবে, দাঁতে হলুদ দাগছোপ দেখা দেবে, দুটি দাঁতের মধ্যে দুরত্ব বাড়বে। যা আপনার প্রাণোচ্ছ্বল হাসিকে বাধা দেবে।

– বলিরেখা দেখা দেয়ঃ ধূমপানের ফলে বয়সের আগেই বলিরেখা, ঢিলেঢালা ত্বক, চামড়া কুঁচকে যাওয়া ইত্যাদী দেখা দেয় ত্বকে। ফলে অনেক কম বয়সেই আপনাকে বয়স্ক মনে হতে লাগে। সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে যারা ধূমপান করেন না তাদের থেকে যারা ধূমপান করেন তাদের চেহারার বয়স ১.৪ গুন বেশি হারে বাড়ে।

– নখ হলুদ হয়ে যায়ঃ সিগারেটের নিকোটিন শুধু আপনার দাঁতকে নয়, আপনার হাতের আঙুল দুটি এবং নখের রংও হলদেটে বা লালচে করে দেয়। এছাড়াও নখ ভেঙ্গে যাবার মত রোগ সৃষ্টি হয়। তাই নখের সৌন্দর্য খুব তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়।

– চুলের ক্ষতি হয়ঃ ধূমপানের ফলে যে শুধু ত্বক ক্ষতিগ্রস্ত হয় তা নয়, চুলও প্রচণ্ডভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয়। বিশেষজ্ঞদের কথায়, সিগারেটে তামাকের পাশাপাশি বিষাক্ত কেমিক্যাল চুলের ডিএনএ-কে ক্ষতিগ্রস্ত করে এবং কোষকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এর ফলে চুল পাতলা হয়ে যায়। যারা ধুমপান করেন তাদের চুল খুব তাড়াতাড়ি পেকে যায়।

– স্ট্রেচ মার্কসঃ সিগারেটে উপস্থিত নিকোটিন শরীরের ফাইবার এবং সংযুক্ত টিস্যুগুলিকে ক্ষতিগ্রস্ত করে। এর ফলে ত্বক নিজস্ব শক্তি ও নমনীয়তা হারায়। এর ফলে শরীরের বিভিন্ন অংশে, যেমন, পেট, হাত, উরু প্রভৃতি অংশে স্ট্রেচ মার্কস প্রকট হয়ে ওঠে।

– থলথলে পেটঃ যাঁরা ধুমপান করেন তাদের ওজন ঠিকঠাক হলেও পেটে চর্বির পরিমান খুব বেশি হয়। ফলে রোগা হলেও পেটের অংশ থলথলে ধরণের হয়ে যায়। এই চর্বি শুধু দেখতে বাজে লাগে তা নয়, শরীরের গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ-প্রত্যঙ্গকে অচলও করতে পারে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত