সোমবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ আশ্বিন ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কমলগঞ্জে শ্লীলতাহানীর চেষ্টায় বখাটের এক বছরের কারাদন্ড



মো.মোস্তাফিজুর রহমান,কমলগঞ্জ:: মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ উপজেলায় স্কুলে আসার পথে নবম শ্রেণির এক ছাত্রীকে ঝাপটে ধরে সামাদ মিয়া (৩০) নামে এক বখাটে শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করে। এ সময় এলাকাবাসী বখাটেকে আটক করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খবর দিলে সরেজমিনে নির্বাহী কর্মকর্তা বখাটের এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন। সোমবার ১৮ সেপ্টেম্বর সকাল নয়টায় আহমদ ইকবাল মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের অদূরে এ ঘটনাটি ঘটে।
জানা যায়, সদর ইউনিয়নের সরই বাড়ি গ্রামের হাসন মিয়ার ছেলে বখাটে সামাদ নিজে একজন বিবাহিত হয়ে প্রায়ই স্কুলগামী ছাত্রীদের নানাভাবে উত্যক্ত করতো। সোমবার সকাল নয়টায় কালাছড়া গ্রামের কাঁঠমিস্ত্রীর মেয়ে আহমদ ইকবাল মেমোরিয়াল স্কুলের নবম শ্রেণির ছাত্রী স্কুলের অদূরে আসার পর পূর্ব থেকে বসে থাকা বখাটে সামাদ মিয়া ছাত্রীকে একা পেয়ে পিছন থেকে ঝাপটে ধরে। এক পর্যায়ে ছাত্রীর শ্লীলতাহানীর চেষ্টা করলে ঐ ছাত্রী আত্মরক্ষার্থে সাহায্যের জন্য চিৎকার করে। এসময় স্থানীয় লোকজন ও স্কুলগামী ছাত্ররা দৌড়ে এসে বখাটেকে ধরে স্কুলে নিয়ে আটকে রেখে কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে খবর দেন। খবর পেয়ে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্যাতিতা ছাত্রী ও প্রত্যক্ষদর্শীদের স্বাক্ষ্য গ্রহন করে মোবাইল কোর্ট এর মাধ্যমে শ্লীলতাহানীর চেষ্টার অভিযোগে বখাটে সামা কে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেন।
আহমদ ইকবাল মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল দাশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, এলাকাবাসীসহ ছাত্র-ছাত্রীদের সামনেই নির্বাহী কর্মকর্তা এই বখাটের শাস্তির রায় প্রদান করেছেন।
কমলগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ মাহমুদুল হক বলেন, বখাটে ছেলেটি বিবাহিত হলেও এর আগে ছাত্রীদের নানাভাবে উত্যক্ত করতো বলেও জানা গেছে। তাকে এক বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়ে কমলগঞ্জ থানার হেফাজতে দেয়া হয়েছে।

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত