বুধবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৮ খ্রীষ্টাব্দ | ৩০ কার্তিক ১৪২৫ বঙ্গাব্দ

কুর্দিস্তানের সীমান্ত অবরোধ করবে এরদোগান



আন্তর্জাতিক ডেস্ক::স্বাধীনতা প্রশ্নে কুর্দিদের গণভোটের প্রতিক্রিয়ায় ইরাকের কুর্দিস্তান রাজ্যের সীমান্ত বন্ধ করার হুমকি দিয়েছেন এরদোগান। শুধু তাই নয়, ওই এলাকা থেকে তেল রপ্তানীও আটকে দেওয়ার হুমকি দেন তিনি। ইরাকের কুর্দি রাজ্যের সরকারের সঙ্গে সম্পর্ক ভালো হলেও এরদোগান মনে করেন স্বাধীনতার জন্য কুর্দিদের সোমবারের গণভোট তার দেশের সংখ্যালঘু কুর্দিদের মধ্যে বিচ্ছিন্নতাবাদের জন্ম দিতে পারে। তাই প্রয়োজন হলে কুর্দিস্তানে সেনা অভিযান চালাতেও প্রস্তুত রয়েছে তুর্কি সেনাবাহিনী।

রাজধানী ইস্তানবুলে দেওয়া এক ভাষণে এরদোগান বলেন, ‘ইরাকের সঙ্গে তুরস্কের একমাত্র সীমান্ত অতিক্রমর জন্য হাবুর এলাকা সিলগালা করে দেওয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘গণভোটের পরিণতিতে কুর্দিস্তানের তেল রফতানিও আটকে দেওয়া হতে পারে।’

তিনি বলেন, ‘এরপর দেখি কোন পথ দিয়ে তারা তেল পাঠায়। তারা কাদের কাছে তেল বিক্রি করে। কপাট আমাদের হাতে।’ এরদোগান স্বাধীনতার পক্ষে কুর্দিদের রায়কে অর্থহীন আখ্যা দিয়ে বলেন, এই গণভোট অকার্যকর ও অবৈধ। তিনি বলেন, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক, বাণিজ্য এবং নিরাপত্তা খাতে প্রয়োজনীয় সব ব্যবস্থা নিতে প্রস্তুত তুরস্ক। আর এক্ষেত্রে সামরিক অভিযানের বিষয়টিও তিনি নাকচ করেননি।
উল্লেখ্য, গত সপ্তাহে ইরাকি কুর্দিস্তানে সীমান্তবর্তী সিলোপি শহরে সাজোয়া যানসহ সামরিক মহড়া শুরু করেছে তুর্কি সশস্ত্র বাহিনী। গণভোটকে কেন্দ্র করে ওই মহড়া আরও জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে, তুরস্ক ছাড়াও ইরাকের কেন্দ্রীয় সরকার ও ইরান গণভোটের তীব্র বিরোধিতা করেছে। তাদের আশঙ্কা গণভোটের ফলে তাদের নিয়ন্ত্রণে থাকা কুর্দি এলাকাগুলোতেও বিচ্ছিন্নতাবাদী আন্দোলন ছড়িয়ে পড়তে পারে

নিউজ সম্পর্কে আপনার বস্তুনিস্ঠ মতামত প্রদান করুন

টি মতামত